bengal news

নিজস্ব প্রতিনিধি, কোচবিহার: দীর্ঘদিন ধরে অত্যাচারিত হয়ে চলেছে একটি পরিবার। থানা, পুলিশ করেও কোনো লাভ হয়নি। প্রাণে বাঁচতে ও বিচার পেতে এবার ওই পরিবার সটান ধরনায় বসল খোদ পুলিশ সুপারের অফিসের সামনে। অত্যাচারের শিকার হওয়া পরিবারটি সিপিএম সমর্থক বলে জানা গিয়েছে। ওই পরিবারের দাবি, স্থানীয় তৃণমূলের কর্মীদের হাতে তাদের লাগাতার অত্যাচারিত হতে হচ্ছে। কোচবিহারের বক্সিরকুটি গ্রামের ঘটনা। অত্যাচারের শিকার হওয়া পরিবারের সদস্য আব্দুল মান্নান আলীর অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে তারা সিপিএম সমর্থক। গত লোকসভা ভোটের পর তাদের বাড়িঘর ভাঙচুর করা হয়েছিল। লিখিতভাবে বিষয়টি তারা তুফানগঞ্জ থানায় জানান। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে থানা থেকে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কয়েকদিন আগে নোটিশ আসে। অভিযোগ, যেসব তৃণমূল কর্মীর নামে নোটিশ আসে তারা এরপর ভয় দেখাতে শুরু করেন ওই পরিবারকে।

শুধু তাই নয়, তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওই পরিবারের সদস্যদের গত পাঁচ দিন ধরে বাড়ি থেকে বের হতে দিচ্ছে না অভিযুক্ত তৃণমূল কর্মীরা। বাড়িতে আটকে রেখে তাদের ওপর অত্যাচার চালানো হয় বলে অভিযোগ। প্রাণ বাঁচানোর তাগিদে শুক্রবার রাতে কোনরকমে ওই পরিবারের সদস্যরা বাড়ি থেকে বেরিয়ে আসেন। রাতেই পরিবারের সদস্যরা কাল জানি নদী পেরিয়ে কোচবিহার শহরে পৌঁছান। এরপর শনিবার সকাল থেকে নিজেদের নিরাপত্তা ও বিচারের দাবিতে পরিবারের সদস্যরা জেলা পুলিশ সুপারের অফিসের সামনে ধর্নায় বসেন। পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ, ওই এলাকার তৃণমূল নেতা ফারুক মন্ডলের নেতৃত্বে এই অত্যাচার চলছে। পুলিশ সব জেনেও কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না।

এদিকে, তাদের বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগ পুরোপুরি অস্বীকার করেছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। যার বিরুদ্ধেই অভিযোগ উঠেছে সেই ফারুক মন্ডল জানিয়েছেন, ওই পরিবারটি মিথ্যা অভিযোগ করছে। তৃণমূলের তরফে ওই পরিবারের ওপর কোন অত্যাচার করা হয়েছে বলে এমন খবর তার জানা নেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here