ছবি: প্রতীকী

ডেস্ক: রোগী মৃত্যুর পর চিকিৎসার গাফিলতি তুলে এর আগে একাধিকবার ভাঙচুর হয়েছে হাসপাতাল, জনতার রোষের মুখে পড়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষও। এবার চিকিৎসার গাফিলতির অভিযোগে উত্তপ্ত হল শহরের এক নামী বেসরকারি হাসপাতাল।

জানা যাচ্ছে, এক এইচআইভি আক্রান্ত বৃদ্ধা ভর্তি ছিলেন ওই হাসপাতালে। বৃদ্ধার পা ও কোমরে গুরুতর চোট লেগেছিল। এর চিকিৎসা চলাকালীনই বৃদ্ধার যে এইডস রোগ রয়েছে তা ধরা পড়ে। রোগ ধরা পড়ার পরই ওই বৃদ্ধাকে ডিসচার্জ করে দেয় হাসপাতাল। কিন্তু বাড়ি ফিরে আসার পর বৃদ্ধার অবস্থার অবনতি ঘটে। ফের যাতে না তাকে হাসপাতাল থেকে বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হয় সেজন্য এবার বৃদ্ধার পরিবার নাম বদল করে বৃদ্ধাকে ওই হাসপাতালেই ভর্তি করে। কিন্তু রক্তপরীক্ষা হওয়ার পরে যথারীতি বৃদ্ধার রোগ সামনে আসে। পরিবারের অভিযোগ, এরপরে কর্তৃপক্ষ কোনওমতেই বৃদ্ধাকে হাসপাতালে রাখতে ইচ্ছুক হয়নি। শুধু তাই নয়, বৃদ্ধাকে নিয়ে যাওয়ার জন্য তাদের ওপর চাপও দেওয়া হয়। শুধু তাই নয়, বৃদ্ধার রোগ জানার পর তার অপারেশনও করতে চাইছে না হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

পরিবারের অভিযোগ অবশ্য সম্পূর্ণ উড়িয়ে দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তাদের দাবি, এইডস-এর জন্য চিকিৎসায় কোনও গাফিলতি করা হচ্ছে এমনটা একদমই নয়। তারা জানিয়েছে, বৃদ্ধার এখন কোনও অপারেশনের দরকার নেই তাই কোনও উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে না। কিন্তু পরিবারের দাবি, এইডস-এর জন্যই অবহেলিত হচ্ছেন বৃদ্ধা।

সমাজের প্রচলিত কিছু ধারণা অনুযায়ী, বেশকিছু রোগ সম্পর্কে মানুষ আজও ভুরু কোঁচকায়। তাদের মধ্যে এইডসও পড়ে। মানুষের মনোভাব ওইভাবে বদলানো যায় না, কিন্তু চিকিৎসার জন্য হাসপাতালকেই ভরসা করেন সকলে। কিন্তু হাসপাতালই যদি রোগ দেখে দেখে চিকিৎসা করে তবে মানুষ ভরসা করবে কাকে, উঠছে প্রশ্ন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here