ডেস্ক: দেশের সাতটি রাজ্যের লক্ষ লক্ষ কৃষকদের ডাকা বনধের আজ দ্বিতীয় দিন। ১৩০টি কৃষক সংগঠনের মূল ‘রাষ্ট্রীয় কৃষক মহাসঙ্ঘ’ এই বনধ ডেকেছে। ফলে আজ দেশের বিভিন্ন শহরে সাপ্লাই হওয়া দুধ আর সব্জির ওপর এর বিরাট প্রভাব পড়বে। দেশের গুরুত্বপূর্ণ ৩০টি জাতীয় সড়কে কৃষকরা ধরনায় বসবে বলে জানা গিয়েছে। তাদের দাবি, দুধের নূন্যতম মূল্য যেন ২৭ টাকা লিটার করা হয়। একই সঙ্গে কৃষকদের ঋণ মকুব এবং সঠিক হারে তাদের সব্জির দাম পাওয়া নিয়েও ক্ষোভ রয়েছে তাদের।

কৃষকদের ডাকা প্রথম দিনের বনধে শুক্রবার ছোটো শহরগুলিতে বিরাট প্রভাব চোখে পড়ে। কোনও গ্রাম থেকেই ফল, দুধ, সব্জি কিছু না আসায় শহরের মানুষদের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। ফলে শহরে মজুত ফল-সব্জির দামও আকাশ ছোঁয়া হয়ে যায়। রাষ্ট্রীয় কৃষক মহাসঙ্ঘের অধ্যক্ষ শিবকুমার শর্মা ১০ জুন পর্যন্ত এই বনধের ডাক দিয়েছেন।

কৃষক ইউনিয়নের প্রমুখ কেদার সিংহ বলেন যে, কৃষকরা একজোট হয়ে তাদের এই আন্দোলন জারি রেখেছে এবং তার প্রভাব খুব ভালোভাবেই দেখা যাচ্ছে। সরকার অনেক চেষ্টা করছে তাদের এই আন্দোলন ব্যর্থ করার, কিন্ত কৃষকরা কোনোভাবেই সরকারের সামনে ঝুঁকবে না। শিবকুমার আরও জানান, সরকারের কৃষকদের প্রতি উদাসীন মনোভাবের ফলে আজ এই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। তাঁর দাবি, সরকার কৃষকদের সঙ্গে কথা না বলেই এই আন্দোলন নিয়ে সাধারন মানুষের মনে ভুলভ্রান্তির সৃষ্টি করছে। কিন্তু এত কিছুর পরও কেন কৃষকদের দাবি মানছে না সরকার? এই একটাই প্রশ্ন ভাবাচ্ছে কেদার সিংহকে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here