ডেস্ক: রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে তাঁর আনা সমস্ত অভিযোগ খারিজ করেছে দেশের শীর্ষ আদালত। যে কোনোও মুহূর্তে তিনি যে গ্রেপ্তার হতে পারেন এমন সম্ভাবনাও উঠে আসছে বারে বারে। চারিদিক থেকে কোণঠাসা হয়ে উঠলেও ঝাঁঝ বিন্দুমাত্র কমেনি একদা পাহাড়ের বাপ বলে নিজেকে দাবি করা মোর্চা নেতা বিমল গুরুংয়ের। এদিন তাঁর প্রকাশিত এক ভিডিও বার্তায় স্পষ্ট হুঁশিয়ারি দিলেন বিমল গুরুং।

এদিন বিমল গুরুংয়ের ওই ভিডিও বার্তা প্রকাশ্যে আনেন মোর্চা নেতা বিমল গুরুং। যেখানে নাম না করে জিটিএর চেয়ারম্যান বিনয় তামাংকে একহাত নেন গুরুং। বলেন, ‘পুলিশকে সামনে রেখে পাহাড়ে কিছু রাজনৈতিক নেতা ছড়ি ঘোরাচ্ছেন। ওঁদের পাশে পাহাড়ের জনগণ নেই। জনতার সমর্থন আমার দিকেই রয়েছে।’ পাহাড়বাসীর সমর্থন আদায়ের জন্যও মরিয়া শোনালো গুরুংকে। তিনি বলেন, ‘আমি দেশদ্রোহী নই। জীবন দেব। কিন্তু, মাথা বিক্রি করব না। গোর্খাদের আত্মপরিচয় ও অস্তিত্ব রক্ষার জন্য এই লড়াই চলবে।’

সম্প্রতি জোর ধাক্কা খেয়েছেন একদিকে, রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে তাঁর করা মামলা খারিজ করে দিয়েছে সুপ্রিমকোর্ট। অন্যদিকে, রাজ্যের সঙ্গে সব বিবাদ ভুলে রাজ্যের পাশে থাকার বার্তা দিয়েছেন সিকিমের মুখ্যমন্ত্রী পবন চামলিং। পাহাড় অশান্তির সময় যখন বিমল গুরুংয়ের বিরুদ্ধে একের পর এক জায়গায় তল্লাশি শুরু হয়েছে ঠিক সেই সময় সিকিমে নির্ভয়ে লুকিয়ে ছিলেন গুরুং। সেই সময় গোর্খাল্যান্ডের দাবিকে সমর্থনও করতে দেখা যায় সিকিমের মুখ্যমন্ত্রীকে। সেই চামলিংই এখন গোর্খাল্যান্ড ঝেড়ে ফেলে রাজ্যের সঙ্গে বন্ধুত্বের বার্তা দিয়েছেন। আসে পাশের সব বন্ধু যখন একের পর এক সরে যেতে শুরু করেছে, তখন অসহায়তার সুর গুরুংয়ের গলায়। এনডিএকে তাঁর পাশে দাঁড়ানোর দাবি জানান তিনি। তাঁর দাবি, ‘মোর্চা এনডিএর শরিক সুতরাং বিজেপি নেতাদের কাছে অনুরোধ, এ সমস্যার সমাধান করুন।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here