kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: দিনভর টানাপোড়েনের পর অবশেষে গ্রেফতার বিজেপি নেতা রাকেশ সিং। জানা গিয়েছে, আজ রাতে বর্ধমানের গলসি থেকে থেকে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছে। আজ দুপুরে যখন খিদিরপুরের অরফানগঞ্জের বাড়িতে তাঁর খোঁজে পুলিশের বিশাল বাহিনী যায়, তখন পুলিশকে বাড়িতে ঢুকতে বাধা দেওয়া হয়। রাকেশ সিংয়ের দুই ছেলে পুলিশের সঙ্গে তীব্র বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়েন। প্রয়োজনীয় অনুমতি নেই বলে দাবি করে পুলিশকে তারা বাড়িতে ঢুকতে বাধা দেন।

এরপর দীর্ঘ সময় পুলিশ সেখানে অপেক্ষা করে। শেষ বিকেল পাঁচটা নাগাদ রাকেশ সিংয়ের ছেলে দরজা খুলে দেন। এরপর পুলিশ তার দুই ছেলেকে আটক করে লালবাজারে নিয়ে যায়। তবে সেই সময় বাড়িতে ছিলেন না রাকেশ সিং। তাঁর ছেলে জানিয়েছিলেন, বাবা দিল্লি গিয়েছেন। কিন্তু দিল্লি যাওয়ার বিষয়টি সম্পর্কে খোঁজ নিয়ে পুলিশ জানতে পারে রাকেশ সিং দিল্লি যাননি। কোথাও গা ঢাকা দিয়ে আছেন। শেষে পুলিশের একাধিক দল তাঁর সন্ধানে বিভিন্ন জায়গায় হানা দেয়। বিশেষ সূত্রে জানা যাচ্ছে, রাতে পূর্ব বর্ধমানের গলসি থেকে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়।

মাদক-কাণ্ডের তদন্তে জেরার জন্য রাকেশকে ডেকেছিল লালবাজার। লালবাজারে হাজিরা দিলেই গ্রেফতারের ভয়ে আগাম জামিনের আবেদন করেন হাইকোর্টে। কিন্তু বিজেপি নেতা রাকেশ সিংয়ের সেই আবেদন খারিজ করে দেয় আদালত। এরপর আজ দুপুরে রাকেশ সিংয়ের খিদিরপুরের অরফানগঞ্জের বাড়ির সামনে হাজির হয় কলকাতা পুলিশের বিশাল বাহিনী। রাকেশ সিংয়ের বাড়িতে মোতায়েন সিআইএসএফ জওয়ানরা কলকাতা পুলিশকে বাড়িতে ঢুকতে বাধা দেয় বলে অভিযোগ।

সেই সময় রাকেশ সিং বাড়িতে ছিলেন না। তার পুত্র এসে পুলিশের সঙ্গে কথা বলেন। রাকেশ সিংয়ের ছেলে পুলিশের কাছে বাড়িতে ঢোকার অনুমতিপত্র দেখতে চান। এই নিয়ে পুলিশের তুমুল তর্ক বাধে তার। শেষে রাকেশ সিংয়ের ছেলে জানান, পুলিশের কাছে নথি নেই বলে ভেতরে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। এরপর যদি মনে করে দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকতে পারে পুলিশ। এই ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে রাকেশ সিংয়ের বাড়ির আশপাশে।

বিজেপি যুবনেত্রী পামেলা গোস্বামী মাদক-কাণ্ডে গ্রেফতার হওয়ার পর তিনি অভিযোগ করেছিলেন তাঁকে ফাঁসানো হয়েছে। আর তাঁকে ফাঁসিয়েছেন বিজেপি নেতা রাকেশ সিং। যিনি আবার বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়র ঘনিষ্ঠ বলে দাবি করেছিলেন পামেলা। সেই মাদক-কাণ্ডে তদন্ত করছে লালবাজারের গোয়েন্দা বিভাগ। আর এই তদন্তে আজ রাকেশ সিং-কে ডেকে পাঠানো হয়েছিল। তবে রাকেশ সিং আজ পুলিশকে ই-মেল করে জানিয়ে দিয়েছেন, তিনি লালবাজারে যেতে পারবেন না। কারণ তিনি আজ দিল্লি যাচ্ছেন। সেখানে দু’দিন থাকবেন। তারপর ফিরে এসে লালবাজারে যেতে তাঁর কোনও অসুবিধা নেই। তারপর হাই কোর্টে তার করা আগাম জামিনের আবেদন খারিজ হয়ে যায়। এরপর তার বাড়িতে হাজির হয় কলকাতা পুলিশের বিশাল বাহিনী। প্রথমে তাঁর দুই ছেলেকে আটক করে নিয়ে আসে পুলিশ। তারপর রাতে পুলিশ গলসি থেকে গ্রেফতার রাকেশ সিংকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here