নিজস্ব প্রতিবেদক, বীরভূম: স্ত্রীকে খুন করে পাড়ি দিয়ে ছিলেন ভিন রাজ্যে।  মন্দিরে  সাধু সেজে  লুকিয়ে ছিলেন৷  কিন্তু তাতেও শেষ রক্ষা হল না৷  ধরা পড়ে গেলেন  সেই খুনি  বলরাম বন্দোপাধ্যায়। তাকে গত ১১ এপ্রিল মধ্যপ্রদেশের ভোপাল থেকে সিআইডি গ্রেফতার করে৷ এরপর ভোপাল আদালত থেকে সিআইডি ট্রানজিট রিমান্ডে সাঁইথিয়া থানায় নিয়ে আসে। রবিবার তাকে সিউড়ি আদালতে তোলা হবে।

২০১৫ সালের ১৪ আগস্ট সাইথিয়ার ১০ নম্বর ওয়ার্ডের রথতলা পাড়ার বাড়ি থেকে  বলরামের স্ত্রী মনি ব্যানার্জির (৩২) রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নগ্ন অবস্থায় মৃতদেহ উদ্ধারটি করে সাইথিয়া থানার পুলিশ। মহম্মদ বাজার থানার গনপুর গ্রামের  বিবেকানন্দ সরকারের মেয়ে মনি ১৩ বছর  আগে  বিয়ে হয় সাইথিয়ার  ব্যবসায়ী উজ্বল ব্যানার্জির। ২০১২ সালে উজ্বলের মৃত্যুর পর তাঁর বন্ধু বলরামকে ১০১৩ সালে বিয়ে করে মনি। বলরামের বাড়ি পান্ডবেশ্বরের গৌড়বাজার এলাকায়। যদিও দ্বিতীয় বিয়ের পর স্বামীকে নিয়ে মনি  তাঁর প্রথম স্বামীর বাড়ি সাইথিয়াতেই থাকতন।

বেকার বলরামকে ওই বাড়িতেই প্রসাধনি সামগ্রির দোকান করে দিয়েছিলেন বিবেকানন্দবাবু। কিন্তু সেই ব্যবসাতেও মন ছিল না বলরামের৷ সারাদিন বাড়িতে টিভি দেখা ও মোবাইলের গেম খেলা নিয়ে ব্যস্ত থাকতো৷ সেই নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে গন্ডগোল প্রায় রোজকার ঘটনায় পরিণত হয়েছিল৷ সেই অশান্তির জেরে বলরাম স্ত্রীকে খুন করে পালিয়ে যায় এবং গা-ঢাকা দেয় ভোপালে। ঘটনার তদন্তভার নেয়  সিআইডি। সাধু বেশে লুকাতে গিয়ে শেষরক্ষা হল না বলরামের৷ অবশেষে পুলিশের জালে ধরা দিতেই হল তাকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here