Exclusive: যাদবপুরকাণ্ডে ছাত্রীদের কদর্য মন্তব্যের জের, এবার FIR হচ্ছে দিলীপের নামে

0
1105
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: যাদবপুরকাণ্ডে উত্তাপ কমার কোনও লক্ষ্মণ আপাতত নেই। এদিনও পাল্টা এবিভিপির মিছিলে রণক্ষেত্রের আকার নেই দক্ষিণ কলকাতার যোধপুর পার্ক। গেরুয়া শিবিরের মিছিল আটকে দেওয়ায় ব্যাপক ধ্বস্তাধস্তি হয় পুলিশ-এবিভিপির। ঘটনার রেশ জিইয়ে রাখতে এবার বিজেপি রাজ্য সভাপতির বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করতে চলেছে যাদবপুরের ছাত্র-ছাত্রীরা। এমনটাই খবর ছাত্র সংগঠন এসএফআই সূত্রে।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়র এবিভিপির অনুষ্ঠানে যোগদান এবং তার পরবর্তী ঘটনাক্রমে যারপরনাই ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি। যাদবপুরের পড়ুয়াদের উদ্দেশে একাধিক কটুক্তি করতে শোনা যায় তাঁকে। যার মধ্যে বেশ কিছু বিতর্কিত শব্দের প্রয়োগও ছিল। এই নিয়েই মঙ্গলবার মূলত যাদবপুরের ছাত্রীদের পক্ষ থেকে যাদবপুর থানায় এই অভিযোগ দায়ের করা বলে জানা গিয়েছে। দিলীপের মন্তব্য এবং পরবর্তী সময়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় নানা ধরনের শাসানিমূলক পোস্টের যাদবপুরের পড়ুয়ারা আতঙ্কে রয়েছেন বলে জানানো হয়েছে। সেই কারণে আগামিকাল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মহামিছিল করে থানা পর্যন্ত মিছিল করে এই অভিযোগ দায়ের করা হবে বলে জানা গিয়েছে। জানানো হয়েছে এসএফআই সূত্রে।

প্রসঙ্গত, যাদবপুর কাণ্ডের পরের দিন সাংবাদিক বৈঠকে বিশ্ববিদ্যালয়ে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করে কমিউনিস্ট ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়েছিলেন দিলীপ। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীদের চরিত্র নিয়েও সওয়াল তুলে দিয়েছিলেন তিনি। দিলীপকে বলতে শোনা গিয়েছিল, ‘ছাত্রীরা যে ভাবে বাবুলকে জড়িয়ে ধরে আক্রমণ করেছে দেখলাম, তাতে ওই ছাত্রীদের শ্লীলতা নিয়েই প্রশ্ন তুলতে ইচ্ছে করে। বাবুলের চরিত্র আমরা জানি। কিন্তু ওঁরা (ছাত্রীরা) কোনও ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত কি না জানতে চাইছি।’

দিলীপের এই মন্তব্যের প্রেক্ষিতে এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় নানা ধরনের শাসানিমূলক পোস্টের বিরুদ্ধেই পৃথক দু’টি অভিযোগ দায়ের করা হবে বলে জানা গিয়েছে। দু’টি অভিযোগের কপিই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়কে পাঠানো হবে বলে জানা গিয়েছে। প্রসঙ্গত, এখনও পর্যন্ত যাদবপুর কাণ্ডে ৫টি এফআইআর দায়ের হয়েছে। যদিও কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি। আগামিকাল সম্ভবত ৬ নম্বর এফআইআর দায়ের হতে চলেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here