kolkata news
Parul

নিজস্ব প্রতিনিধি : পুলিশ হেফাজতে এক যুবকের মৃত্যুতে অগ্নিগর্ভ বরাকর। পুলিশের গাড়িতে আগুন। দফায় দফায় বিক্ষোভ। টায়ার জ্বালিয়ে পথ অবরোধ। ইট বৃষ্টিও। সাসপেন্ড দুই পুলিশ কর্মী।

ads

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার রাতে ছিনতাইবাজ সন্দেহে আরমান খান নামে এক যুবককে আটক করে পুলিশ। আজ, মঙ্গলবার সকালে পুলিশ হেফজতে আরমানের মৃত্যু হয় বলে অভিযোগ। ঘটনার জেরে এলাকায় উত্তেজনা ছড়ায়। এলাকাবাসীর দাবি, আরমানকে পিটিয়ে মেরে ফেলেছেন বরাকর থানার পুলিশ আধিকারিক। এ খবর ছড়িয়ে পড়তেই দলে দলে লোকজন এসে জড়ো হন বরাকর থানার সামনে। উত্তেজিত জনতা টায়ার জ্বালিয়ে পথ অবরোধ করে। শুরু হয় ইট বৃষ্টি। পুলিশের গাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয় উত্তেজিত জনতা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে নামানো হয় রাফ। লাঠি উঁচিয়ে বিক্ষোভকারীদের হটিয়ে দেয় পুলিশ। ঘটনার জেরে এদিনই দুই পুলিশ কর্মীকে সাসপেন্ড করা হয়েছে।এঁরা হলেন বরাকর ফাঁড়ির আইসি অমরনাথ দাস এবং এসআই প্রশান্তকুমার পাল। কারণ এঁদের দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।  

বিক্ষোভের খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে চলে আসেন আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনার অজয় ঠাকুর। রাফ নামিয়ে পরিস্থিতি আয়ত্ত্বে আনে পুলিশ। স্থানীয় বাসিন্দা সিকান্দার আনসারি বলেন, গতকাল রাতে আমার বন্ধুকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। সকালে শুনলাম ওকে মেরে ফেলা হয়েছে। কেন মারা হয়েছে, তার জবাব চাই! এ ব্যাপারে অবশ্য পুলিশের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here