ডেস্ক: সোমবার মেয়র নির্বাচন। মেয়র পদের জন্য ভোটাভুটি নিছক নিয়ম রক্ষা হলেও বিজেপির তরফে মীনাদেবী পুরোহিত প্রার্থী হয়ে চমক দিয়েছেন। মেয়রের চেয়ারে ফিরহাদের বসা নিশ্চিত ঠিকই, তবে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রাক্তন মেয়রের উপস্থিতি নিয়ে ইতিউতি শুরু হয়েছে জল্পনা। জানা যাচ্ছে, আগামীকাল শোভন চট্টোপাধ্যায় উপস্থিত থাকবেন কিনা জানতে চেয়ে এদিন তাঁকে ফোন করেন ফিরহাদ হাকিম। সূত্রের খবর, নিয়ম রক্ষার এই নির্বাচন পর্বে প্রাক্তনকে উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ করেছেন ভাবী মেয়র।

ফোনে তাদের মধ্যে কী কথা হয়েছে তা অবশ্য প্রকাশ্যে আসেনি। তবে শোভনের তরফ থেকে ইতিবাচক সাড়া পাওয়া গিয়েছে বলে খবর। শোভনের ঘনিষ্ঠ মহলেরও মত, ভোট দিতে যাবেন শোভন। একটা ভোট কম হলে ফিরহাদের মেয়র হওয়া আটকাবে না ঠিকই, তবে শোভন যে দলের অনুগত সৈনিক হিসেবেই রয়েছেন, সেটাও আরেকবার বুঝিয়ে দেওয়া যাবে সকলকে।

এই নির্বাচনে অংশ নিতে যে সকল কাউন্সিলারদের উপস্থিত থাকতেই হবে, এমন কোনও ফরমানও অবশ্য জারি করা হয়নি তৃণমূলের তরফ থেকে। তবে রবিবার দুপুরে আচমকা ফোনের মাধ্যমে ফিরহাদও যে তাঁর বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কে উদাহরণ দিলেন, তাও বলা যায়। শোভনও হবু মেয়রের কথায় সানন্দে রাজি হয়ে জানান, তিনি ভোট দিতে উপস্থিত থাকতে পারবেন। প্রাক্তনের সম্মতিতে ফিরহাদও বেশ খুশিই হয়েছেন।

অন্যদিকে, শোভন মন্ত্রিত্ব এবং মেয়র পদ থেকে ইস্তফা দিলেও মমতার অন্যতম ঘনিষ্ঠ ফিরহাদের এই ফোনের অন্য তাৎপর্যও রয়েছে। প্রথমত, শোভন ও ফিরহাদ দীর্ঘদিনের সহকর্মী। এই ফোনের মাধ্যমে তাদের মধ্যে সম্পর্কে যাতে কোনও মতে আঁচ না পড়ে, সেই বিষয়টি নিশ্চিত করে রাখলেন ববি। দ্বিতীয়ত, দলের সঙ্গে দুরত্ব তৈরি হলেও, শোভন যে দলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ সেই বার্তাও ফিরহাদের এই ফোনের মাধ্যমে কার্যত দিয়ে রাখলেন মমতা।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here