international news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: দিল্লির নিজামুদ্দিন দরগায় ধর্মীয় জমায়েত থেকে ক্রমশই বড়সড় সংক্রমণের শঙ্কা ছড়াচ্ছে গোটা দেশে। সেদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকা ৭ জনের ইতিমধ্যেই মৃত্যু হয়েছে। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল জানিয়েছেন, সেদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকা ৪৪১ জনের মধ্যে করোনার উপসর্গ লক্ষ করা হয়েছে। যাদের মধ্যে ইতিমধ্যে ২৪ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। এই সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে কয়েকশো হয়ে গেলে অবাক হওয়ার কিছুই থাকবে না। কেজরির কথায়, ‘এই সংক্রমণ কতজনের মধ্যে ছড়াতে পারে এটা ভেবেই আমি আতঙ্কিত হয়ে পড়ছি।’ যেই ধর্মের ধর্মীয় গুরুই হন না কেন, তাদের কাছে কেজরিওয়াল আবেদনের সুরে বলেছেন, জীবনটাই সবার আগে।

দরগার ওই জমায়েতকে এদিন চরম দায়িত্বজ্ঞানহীন বলে আখ্যা দিয়েছেন কেজরিওয়াল। ‘বিশ্বজুড়ে মানুষের মৃত্যু হচ্ছে, যখন সব ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান মরুভূমিতে পরিণত হয়েছে, তখন এই ধরনের কাজ করা অপরাধ। তাবলিঝি জামাত সংগঠন গত ৮-১০ মার্চ এই জমায়েত করেছিল নিজামুদ্দিন দরগায়। যেখানে প্রায় ২০০০ মানুষ অংশ নিয়েছিলেন। তাদের সকলকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানোর পাশাপাশি নমুনা পরীক্ষাও শুরু হয়েছে। অন্যদিকে পশ্চিমবঙ্গের কয়েকজন ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছিল বলে জানা যায়। তাদের চিহ্নিত করে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা এবং নমুনা পরীক্ষা করা শুরু হবে বলে জানিয়েছে রাজ্য।

অন্যদিকে এই সবের মধ্যে প্রথম করোনা ভাইরাস আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে। এতদিন পর্যন্ত এই রাজ্যে কোনও করোনা আক্রান্ত রোগীর খোঁজ মেলেনি। কিন্তু মঙ্গলবার প্রথম করোনা আক্রান্তের খোঁজ মেলে ঝাড়খণ্ডে। সূত্রের খবর, এই রাজ্যের প্রথম করোনা আক্রান্ত একজন বিদেশি মহিলা। তিনি আদতে মালয়শিয়ার বাসিন্দা। তাঁকে রাঁচির খেল গাঁও হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here