news international

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আইসিএমআর-এর নির্দেশ অনুযায়ী কলকাতায় শুরু হলো র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট। পরীক্ষার আধঘণ্টার মধ্যেই ১০ জনের রিপোর্ট এল পজেটিভ, এমনটাই জানা গিয়েছে কলকাতা পুরসভা সূত্রে। অর্থাৎ ওই ১০ জনের শরীরে করোনার সংক্রমণ হয়েছিল এবং নিজের থেকেই তাদের শরীর এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়ে অ্যান্টিবডি তৈরি করে ফেলেছে।বৃহস্পতিবার কলকাতা পুরসভার প্রশাসক ফিরহাদ হাকিমের ওয়ার্ড থেকে এই টেস্টের সূচনা হয়। এদিন চেতলা ৮২ নম্বর ওয়ার্ডের অহিন্দ্র মঞ্চ এই টেস্টর আয়োজন করা হয়। মোট ৫০ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়।

জানা গিয়েছে, এই ৫০ জনের মধ্যে যে ১০ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে, ইতিমধ্যেই তাদের নাম-ঠিকানা স্বাস্থ্য দফতরের কাছে জানানো হয়েছে। ওই ১০ জনের সংস্পর্শে কারা এসেছিল তা খতিয়ে দেখছে কলকাতা পুরসভা।

শুধুমাত্র কলকাতা পুরসভাতেই নয়, এদিন এই নতুন কিটের ব্যবহার হয় রাজ্যের অন্যত্রও। এই নতুন কিটে একসঙ্গে ৮ জনের পরীক্ষা করা সম্ভব হবে। এক্ষেত্রে রিপোর্টও আসছে চটজলদি। ৩০ থেকে মাত্র ৪০ মিনিটেই টেস্টের ফল মিলছে। এর দ্বারা দ্রুত সংক্রমিতদের চিহ্নিত করা সম্ভব হচ্ছে। ফলে সংক্রমণ দ্রুত রুখে দেওয়া যাবে বলেই আশাবাদী কলকাতা পুরসভা।

এবিষয়ে ইতিমধ্যেই কলকাতা পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর অন্যতম সদস্য অতীন ঘোষ জানান, অল্প কিছুদিনের মধ্যেই ১৬টি বরোতে পাকাপাকি ভাবে র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট কেন্দ্র গড়ে তোলা হবে। এই কেন্দ্রগুলিতে প্রতিদিন গড়ে ৫০টি করে টেস্ট করা যাবে। পুরসভা সূত্রে খবর, প্রথম অবস্থায় পঞ্চাশটি করে টেস্ট করা হলেও ধীরে ধীরে বাড়ানো হবে টেস্ট এর পরিমাণ। সম্পন্ন পরিকাঠামো গড়ে উঠলে প্রত্যেক বরতে এডমিনের ৪০০ জনের নমুনা পরীক্ষা করা সম্ভব হবে। একইভাবে ১৬টি বরোতে প্রত্যেকদিন গড়ে ৬৪০০ জনের নমুনা পরীক্ষা করা সম্ভব হবে। এই পরীক্ষার ফলে সহজেই সংক্রমিতদের খুঁজে পাওয়া সম্ভব হবে। ফলে গোষ্ঠী সংক্রমণ অনেকটাই রোখা যাবে বলে আশাবাদী পুরকর্তৃপক্ষ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here