নিজস্ব প্রতিবেদক, পুরুলিয়া: গত পঞ্চায়েত ভোটে পুরুলিয়া অপ্রত্যাশিত ফল করেছিল বিজেপি। পুরুলিয়ায় হিন্দুত্বের জমি তৈরির দুই কারিগরকেই দলে টেনে নিয়েছিল তৃণমূল। পুরুলিয়ার সংযোজক ও সহ-সংযোজক গৌরব সিং ও সুরজ শর্মা যোগ দেন শাসকদলে। সেই সুরজের ‘ঘর ওয়াপসি’ হল গেরুয়া শিবিরে। রবিবার বিজেপির রাজ্য দফতরে পদ্মপতাকা হাতে তুলে নেন সুরজ শর্মা-সহ চার জন। তাঁদের মধ্যে সুরজ শর্মা ও অভিমন্যূ কুমার আগে বজরং দল করতেন। মাস কয়েক আগে তৃণমূলে নাম লেখান।

রাম নবমীতে অস্ত্র নিয়ে মিছিল-সহ একাধিক মামলা হয়েছিল সুরজ ও গৌরবের বিরুদ্ধে। ১১৪ দিন জেলও খেটেছেন তাঁরা। জামিনে মুক্ত পাওয়ার পরই শিবির বদলে নেন সুরজ-গৌরব। পুরুলিয়ায় পঞ্চায়েত ভোটে বিজেপির হয়ে কাজ করেছিলেন গৌরব ও সুরজ। তাদের দুই নেতাকে পুলিশের ভয় দেখিয়ে শিবির বদল করানো হয়েছে বলে তখন দাবি করেছিল ভিএইচপি নেতৃত্ব।
হিন্দুত্ববাদী মুখ হিসেবে গৌরব ও সুরজের পরিচিতি রয়েছে পুরুলিয়ায়।

 

তাঁদের অনুগামীও প্রচুর। সোমবার সকালে পুরুলিয়া এক্সপ্রেসে ট্রেনে পুরুলিয়া পৌঁছতেই উৎসবে মেতে ওঠে বিজেপি সমর্থকরাl এদিন গেরুয়া আবিরে বিজেয় উৎসব মেতে ওঠে পুরুলিয়া গেরুয়া শিবির৷ সুরজ শর্মা জানান, তাঁর সঙ্গে আরও আড়াই হাজার বজরং দল ও তৃণমূলের অনুগামী রয়েছেন। তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে কেন? সুরজের কথায়, ”তৃণমূলে থেকে কাজ করতে পারছিলাম না। আমরা মানুষের মধ্যে থেকে হিন্দুত্বের কাজ করে চাই”।  আসন্ন রাম নবমীতে এবারও পুরুলিয়ায় ঘটা করে শোভাযাত্রা ও অন্যান্য অনুষ্ঠান করা হবে বলে জানিয়েছেন সুরজ শর্মা। সুরজদের নামিয়ে মেরুকরণের ফায়দা তোলার চেষ্টা করবে গেরুয়া শিবির। সেই ইঙ্গিত দিলেন সুরজ শর্মাও। বললেন, ”আগে দেখিয়ে ক্যা হোতা হ্যায়!’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here