ডেস্ক: রাজ্যে বিনিয়োগ আনতে নানারকম পদক্ষেপ নিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একাধিক বিদেশ সফর, বিজনেস সামিট করে বিনিয়োগের রাস্তা মসৃণ করার চেষ্টা করেছেন তিনি। তারই যেন সুফল পেতে চলেছে রাজ্য। রাজ্যের অর্থনৈতিক পরিস্থিতিতে বড়সড় বদল হতে চলেছে পুজোর পরই। অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্রের ঘোষণায় এমনটাই প্রকাশ পাচ্ছে। তিনি জানিয়েছেন, পুজোর পরেই রাজ্যে বিনিয়োগ করতে চলেছে জনপ্রিয় ই-কমার্স সংস্থা ফ্লিপকার্ট। এই খবর সামনে আসতেই পুজোর মুখে রাজ্যবাসীর খুশির পরিমাণ যেন আরও দ্বিগুণ হল।

জানা যাচ্ছে, পুজোর পরের ৬ মাসের মধ্যেই রাজ্যে প্রায় ৯৫১ কোটি টাকার বিনিয়োগ করতে চলেছে ফ্লিপকার্ট। বিনিয়োগের জন্য ফ্লিপকার্টকে ১০০ একর জমি দিতে রাজ্যের বিভিন্ন জমির প্রস্তাব দিয়েছিল সরকার। সেই প্রস্তাবের মধ্যে থেকেই হরিণঘাটার ইন্ডাস্ট্রিয়াল হাবকে বেছে নিয়েছে ফ্লিপকার্ট সংস্থা। হরিণঘাটায় সাড়ে ৩৫০ একর জমি শিল্প কারখানার জন্য নির্দিষ্ট করে রেখেছিল রাজ্য সরকার, সেখান থেকেই ১০০ একর দেওয়া হচ্ছে ফ্লিপকার্টকে। সেখানেই তৈরি হবে সংস্থার লজিস্টিক হাব।

শিল্পমন্ত্রী তথা অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র জানান, প্রায় ৬ মাস আগেই রাজ্যকে বিনিয়োগের প্রস্তাব দিয়েছিল ফ্লিপকার্ট। সেই প্রস্তাবেই সম্মতি দিয়েছে রাজ্য সরকার। জানা যাচ্ছে, প্রস্তাব গৃহীত হলেও এখন শুধুমাত্র দরকার মন্ত্রিসভার গ্রিণ সিগন্যাল। মন্ত্রিসভাতে পাশ হলেই রাজ্যে শুরু হয়ে যাবে বিনিয়োগ প্রক্রিয়া। দেড় বছরের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে লজিস্টিক হাব তৈরির কাজ। ফ্লিপকার্টের দাবি, হাবটি তৈরি হয়ে গেলে রাজ্যে প্রায় ১৮ হাজার কর্মসংস্থান হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here