kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: কথা ছিল আজই আস্থাভোট হবে মধ্যপ্রদেশ বিধানসভায়। তবে সোমবার সকাল থেকে ধাপে ধাপে যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে তাতে আদৌ আস্থাভোট হবে কিনা তা নিয়ে তৈরি হয়েছে শঙ্কা। এহেন পরিস্থিতির মাঝেই সোমবার সকালে মধ্যপ্রদেশের রাজ্যপাল লালজি ট্যান্ডনকে চিঠি লিখে আস্থাভোট পিছিয়ে দেওয়ার আর্জি জানালেন মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথ।

এদিন বিজেপির বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ তুলে কমল নাথের দাবি, কংগ্রেসের একাধিক বিধায়ককে কর্ণাটকে পুলিশ প্রহরায় জোর করে আটকে রেখেছে বিজেপি। এহেন পরিস্থিতিতে কোনও ভাবেই সম্ভব নয় আস্থা ভোট। নিজের লেখা চিঠিতে লালজি ট্যান্ডন তিনি বলেন, ‘১৩ মার্চ ২০২০। এই দিনে আপনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করে একটি বিষয়ে আপনাকে অবগত করেছিলাম আমি। কংগ্রেসের একাধিক বিধায়ককে কর্ণাটকে জোর করে আটকে রেখেছে বিজেপি। আস্থাভোট যদি করতেই হয় তবে সকলের উপস্থিতিতে সেটা করা উচিত। নাহলে তা বেইনি হয়। একাধিক বিধায়কের অনুপস্থিতিতে সেটা করানো কোনওভাবেই কাজের কথা নয়।’ এহেন পরিস্থিতিতে আস্থাভোট পেছাতে তিনি রাজ্যপালকে সংবিধানের দুটি ধারাও স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন।

অন্যদিকে, আস্থাভোটের উদ্দেশ্যে সোমবার একে একে বিধানসভায় উপস্থিত হতে শুরু করেছেন মধ্যপ্রদেশের বিধায়করা। যদিও মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহানের তরফে কমলনাথের দিকে আঙুল তুলে বলা হয়েছে হার বুঝতে পেরে স্পিকারের সাহায্য নিয়ে আস্থাভোট পিছিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা শুরু করেছেন মুখ্যমন্ত্রী কমলনাথ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here