kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: পরিকল্পনা ছিল রামনবমী কিংবা অক্ষয় তৃতীয়া। তবে বিশ্বজোড়া বিপর্যয়ের জেরে একাধিকবার পিছিয়ে গিয়েছে বহু প্রতিক্ষিত রাম মন্দির নির্মাণের কাজ। তবে আর নয়, করোনা পরিস্থিতিকে সঙ্গী করেই অযোধ্যাতে শুরু হয়ে গেল রাম মন্দির নির্মাণের মহাযজ্ঞ। মঙ্গলবার নির্মাণ স্থলে গিয়ে পুজোর পর রাম মন্দির তৈরীর কাজ শুরু করে দিলেন মহন্ত নৃত্য গোপাল দাস।

অযোধ্যা রাম মন্দির কেমন হবে তার নীলনকশা বহু আগেই তৈরী করে রেখেছিল বিশ্ব হিন্দু পরিষদ। শীর্ষ আদালতের নির্দেশ হাতে আসার পরই গোটা পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য কোমর বেঁধে নেমেছে আদালতের তৈরি করে দেওয়া রাম মন্দির তীর্থক্ষেত্র ট্রাস্ট। যে ট্রাস্টের সভাপতি নৃত্য গোপাল দাস। পরিকল্পনা অনুযায়ী ১২৫ ফুট উচ্চতা সম্পন্ন হবে এই রাম মন্দির। যদিও সম্প্রতি সেটাকে ১৬০ ফুট করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। রাম মন্দিরের প্রথম তলা হবে ১৮ ফুট। যেখানে স্থাপিত হবে রামলালার বিরাজমান মূর্তি। দ্বিতীয় তলার উচ্চতা রাখা হচ্ছে ১৫ ফুট ৯ ইঞ্চি। এখানে অধিষ্ঠিত হবেনা রাম, লক্ষণ, সীতা। রাজা রামের দরবার হিসেবে গড়ে তোলা হবে এই দ্বিতীয় তল। আপাতত জোরকদমে মঙ্গলবার থেকে শুরু হয়ে গিয়েছে মন্দির নির্মাণের কাজ। বিশাল অংকের অর্থ বরাদ্দ হয়েছে এই মন্দিরের জন্য।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের নভেম্বর মাসে সুপ্রিম কোর্ট রায় দেয়, অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতেই রামমন্দির গঠন করা হবে। মসজিদ গড়ার জন্য বিকল্প ৫ একর জমি দেওয়া হবে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে। আদালতের নির্দেশ মেনে গড়ে তোলা হয় ১৫ সদস্যের শ্রী রাম জন্মভূমি তীর্থক্ষেত্র ট্রাস্ট। মন্দির তৈরির কাজ শুরু হওয়ার কথা ছিল রাম নবমীর দিন থেকে। পরে তা পিছিয়ে ভাবা হয় অক্ষয় তৃতীয়ার দিনকে। সেখানেও বাধ সাধে করোনা পরিস্থিতি। এবার করোনাকে উপেক্ষা করেই শুরু হল মন্দির গঠন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here