পুলিশে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণা, গোয়েন্দা জালে গ্রেফতার প্রাক্তন পুলিশ কর্মীই

0
398
kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: পুলিশে চাকরি দেওয়ার নাম করে প্রতারণার অভিযোগে এক প্রাক্তন পুলিশ কর্মীকেই গ্রেফতার করল লালবাজারের গোয়েন্দা শাখা। রবিবার শহরের প্রিন্স আনোয়ার শাহ রোডে সাউথ সিটি মলের ভিতর থেকে অভিযুক্তকে হাতেনাতে গ্রেফতার করেন গোয়েন্দারা। পুলিশ সূত্রে খবর, ধৃতের নাম জয়ন্ত দত্ত। তিনি কলকাতা পুলিশের রিজার্ভ ফোর্সের কনস্টেবল পদে কর্মরত ছিলেন। রবিবার সন্ধেয় তাঁকে গ্রেফতার করে লালবাজারে নিয়ে যাওয়া হয়। এই একই মামলাতে গত ১৭ই জুলাই উৎপল রায় নামে আরও এক অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছিল মুচিপাড়া থানার পুলিশ।

চলতি বছর জুলাই মাসে কলকাতার মুচিপাড়া থানায় এক ব্যক্তি অভিযোগ জানান, পুলিশের কনস্টেবল পদে চাকরি দেওয়ার নাম করে তাঁর থেকে তিন লক্ষ টাকা নিয়েছেন দুই ব্যক্তি। যার মধ্যে একজন নিজেকে পুলিশ কর্তা বলে পরিচয় দিয়েছিলেন বলে জানান অভিযোগকারী। এরপর সময় গড়িয়ে গেলেও মেলেনি চাকরি, বারবার টাকা ফেরত চাইলেও আর কোনও সাড়া পাওয়া যায়নি ওই ব্যক্তির তরফে। এরপরেই মুচিপাড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে দ্রুত তদন্ত শুরু করে মুচিপাড়া থানার পুলিশ। শুরুতেই এই মামলায় অন্যতম অভিযুক্ত উৎপল রায় নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাঁকে পুলিশি হেফাজতে নিয়ে জেরা করে মেলে এই চক্রের অন্যতম পান্ডার নাম। এরপরই তদন্তের দায়িত্ব বর্তায় লালবাজারের গোয়েন্দা শাখায়। তদন্তভার হাতে নিয়ে কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ জানতে পারে, এই ঘটনায় মূল অভিযুক্ত জয়ন্ত দত্ত এক সময় কলকাতা পুলিশের কনস্টেবল পদে কর্মরত ছিলেন। দায়িত্বে ছিলেন রিজার্ভ ফোর্সের। তদন্তে নেমে আরও জানা যায়, ২০০৬ সালে তাঁকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করে দেওয়া হয়। পুলিশ সূত্রে খবর, কর্মরত অবস্থাতেও প্রতারণা সহ একাধিক অপরাধের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন জয়ন্ত দত্ত।

এর পরেই জয়ন্ত দত্তের বিরুদ্ধে শুরু হয় বিভাগীয় তদন্ত। দোষী প্রমাণিত হওয়ায় ওই বছরেই তাকে চাকরি থেকে বার করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় কলকাতা পুলিশ বিভাগ। তার পরেই পাকাপাকি ভাবে প্রতারণার ব্যবসা শুরু করে প্রাক্তন পুলিশ কর্মী জয়ন্ত দত্ত। অভিযোগকারীর দাবি, কলকাতা পুলিশের কনস্টেবল পদে চাকরি দেওয়ার নাম করে তাঁর থেকে মোট তিন লক্ষ টাকা নিয়েছিলেন অভিযুক্ত।

এই মামলায় পূর্বে গ্রেফতার হওয়া উৎপল রায়কে জেরা করেই মিলেছিল জয়ন্ত দত্তের সন্ধান। সেই মতো তার ওপর শুরু হয় সাদা পোশাকে গোপনে নজরদারি। অবশেষে রবিবার গোপন সূত্রে খবর পেয়ে, যাদবপুর থানার পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে প্রিন্স আনোয়ার রোডের ওপর সাউথ সিটি মলে হানা দেয় লালবাজারের গোয়েন্দা বিভাগ। সেখান থেকেই হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয় মূল অভিযুক্ত জয়ন্ত দত্তকে। তাঁর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১২০বি, ৪২০, ৪৬৭, ৪৬৮, ৪৭১ ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। প্রাথমিক জেরায় ধৃত নিজের অপরাধ কবুল করেছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর। ধৃতকে আজ আদালতে পেশ করে নিজেদের হেফাজতে চাইবে কলকাতা পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here