ডেস্ক: প্রতিরক্ষামন্ত্রকের তহবিলে রয়েছে অর্থের টান। তাই এবার প্রয়োজনীয় অস্ত্র-শস্ত্র কেনার ক্ষেত্রে রাশ টানতে চলেছে প্রতিরক্ষামন্ত্রক। সংবাদমাধ্যম সূত্রের খবর, এই মুহূর্তে প্রয়োজনের তুলনায় প্রায় ১৫-২০ শতাংশ অর্থ কম রয়েছে ভাঁড়ারে। এই কারণেই মিসাইল সহ অন্যান্য অস্ত্র কেনার ক্ষেত্রে রাশ টানা হবে।

যেই যেই অস্ত্রগুলি কেনার সিদ্ধান্ত আপাতত স্থগিত রাখা হবে সেগুলি হল, মাল্টিপল রকেট লঞ্চার, স্পেশালাইজড মাইন্স এবং অ্যান্টি ট্যাঙ্ক বিস্ফোরক। প্রতিরক্ষামন্ত্রকের এক বরিষ্ঠ আধিকারিক ইন্ডিয়া টুডে-কে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে জানিয়েছেন, আর্মি কমান্ডার্সের কনফারেন্সে এই অবস্থা কাটিয়ে ওঠার সূত্র খুঁজতে আলোচনা করা হবে।

যদিও অস্ত্র কেনায় রাশ টেনে খুব একটা লাভের মুখ দেখবে না প্রতিরক্ষামন্ত্রক। উল্লেখিত অস্ত্রগুলি না কিনলে আগামী তিন বছরে মাত্র ৬০০-৮০০ কোটি টাকা সঞ্চয় হবে মন্ত্রকের। জানা গিয়েছে, সেনাবাহিনীর কাছে কমপক্ষে ৪০ দিন যুদ্ধ করার মতো অস্ত্র মজুত থাকতে হয়। কিন্তু এই মুহূর্তে মজুত অস্ত্র দিয়ে মাত্র ১০ দিন যুদ্ধ করা সম্ভব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here