kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, পূর্ব মেদিনীপুর: আমফানের ক্ষতিপূরণের টাকা নিজের দুই ছেলেকে পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগে গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্যার বাড়ি ঘেরাও করে বিক্ষোভ । পূর্ব মেদিনীপুর জেলার মহিষাদল ব্লকের নাটসাল ২ পঞ্চায়েত এর অন্তর্গত পূর্ব শ্রীরামপুর গ্রামের ঘটনা। নমিতা দাস নামে ওই গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্যা নিজের দুই ছেলের নামে আমফানের টাকা নিয়েছেন বলে অভিযোগ। দুই ছেলের নামে ৪০ হাজার টাকা পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগে তুলে এলাকাবাসী মহিষাদল থানার পূর্ব শ্রীরামপুর গ্রামে ওই গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্যার বাড়ি ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখায়।

এলাকাবাসীর দাবি, আমফান ঝড়ে তাদের এলাকায় বহু মানুষের বাড়ি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। তাদের বহু মানুষ এখনও ক্ষতিপূরণ পাননি। সেই সব মানুষকে আমফানের ক্ষতিপূরণ পাইয়ে না দিয়ে নিজের পাকা বাড়ি থাকা সত্ত্বেও তার নিজের দুই ছেলের নামে সেই ক্ষতিপূরণের টাকা নিয়েছেই ওই গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্যা। এর প্রতিবাদের এদিন এলাকার মানুষ একযোগে তার বাড়ির সামনে হাজির হয়ে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে। সকাল থেকে এই বিক্ষোভের জেরে এলাকায় যথেষ্ট উত্তেজনা সৃষ্টি হয়।

উল্লেখ্য, আমফানের জেরে কোনও ক্ষতি না হওয়া সত্ত্বেও ক্ষতিপূরণের টাকা নেওয়ার অভিযোগে পূর্ব মেদিনীপুরের নন্দীগ্রাম বিধানসভা এলাকার ২০০ জন তৃণমূল নেতাকে শো-কজ করেছিল তৃণমূল। শুধু শো-কজ নয়, তাদের তিন দিনের মধ্যে টাকা ফেরত দিতে নির্দেশও দেওয়া হয়েছিল। বৃহস্পতিবার সেই নির্দেশ দেওয়া হয়।  সোমবার সাংবাদিক বৈঠক নন্দীগ্রাম ব্লক তৃণমূল সভাপতি মেঘনাথ পাল জানিয়েছেন, তাঁদের সেই চিঠি পাওয়ার পরে টাকা ফেরানোর হিড়িক পড়ে নন্দীগ্রামে। রবিবার পর্যন্ত ৮৭ জন অভিযুক্ত টাকা ফেরত দিয়েছেন। শুধু টাকা ফেরত নয়, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আরও কঠিন পদক্ষেপ নিয়েছে তৃণমূল। এক গ্রামপ্রধান-সহ ২৫ জনকে সাসপেন্ড করেছে। এর মধ্যে কয়েক জন পঞ্চায়েত ও পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য-সহ বিভিন্ন স্তরের দলীয় নেতৃত্ব আছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here