ডেস্ক: সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশ হত্যাকাণ্ডে উঠে এল এবার নয়া চমক। গৌরী লঙ্কেশকে খুন করার জন্য পাঁচ বছর ধরে পরিকল্পনা করছিল হিন্দু চরমপন্থী সংগঠন সনাতন সংস্থা। এমনই এক চাঞ্চল্যকর তথ্য সবার সামনে তুলে ধরল তদন্তকারী অফিসাররা। তদন্তকারী অফিসাররা লঙ্কেশ হত্যাকাণ্ডের প্রায় ৯,২৩৫ পাতার একটি চার্জশিট পেশ করেছে আদালতের কাছে।

এদিন আদালতে সরকারী আইনজীবী বলেন, গৌরীর ওপর কারোর ব্যক্তিগত আক্রোশ ছিল না। তিনি হিন্দুত্ববাদের বিরুদ্ধে লিখতেন বলেই তাঁকে খুন করা হয়েছে। তাঁকে এই খুন করার পরিকল্পনা নাকি দীর্ঘ ৫ বছর ধরে করা হচ্ছিল বলে জানা গিয়েছে। এখনও পর্যন্ত এই খুনের ঘটনায় মোট ১৮ জন দোষীকে সাব্যস্ত করা হয়েছে। জানা গিয়েছে, খুনের ছক যারা কষেছিল, তাদের নাম অমল কালে, সুজিত কুমার ওরফে প্রবীণ এবং অমিত দেগওয়েকর। ২০১৭ সালের ৫ সেপ্টেম্বর রাতে নিজের গৌরী লঙ্কেশকে হত্যা করার সময় পরশুরামের নাকি জানাই ছিল না সে কাকে হত্যা করতে যাচ্ছে। প্রথম সারির একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের তথ্য অনুসারে, ২৬ বছরের এই আততায়ীকে বলা হয়েছিল নিজের ধর্ম বাঁচাতে তাঁকে একজনকে হত্যা করতে হবে। কথা মতো সেই কাজ করে বাঘমারে। কিন্তু এখন তাঁর মনে হচ্ছে, একজন মহিলাকে এভাবে হত্যা করা ঠিক হয়নি। উল্লেখ্য, গৌরী লঙ্কেশকে লক্ষ্য করে চারটি বুলেট ছোঁড়ে বাঘমার, যার মধ্যে তিনটি বুকে লেগে মৃত্যু হয় তাঁর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here