kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, বিধাননগর: বয়সের ছাপ পড়েছে শরীরে। কথা বলতে গেলে গলা কাঁপে। কিন্তু মনের জোর কাঁপেনি। করোনা মোকাবিলায় সরকারের কাঁধে কাঁধ মেলাতে চান। কিন্তু অশক্ত শরীর জবাব দিয়েছে। তাই ৯০ হাজার টাকা মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দিলেন সল্টলেকের ইসি ব্লকের বাসিন্দা মিহির কুমার চট্টোপাধ্যায়। বর্তমানে তার বয়স ৯৯ বছর। দমকল মন্ত্রী সুজিত বসুর হাতে মঙ্গলবার ৯০ হাজার টাকার চেক তুলে দেন তিনি। ১ জুন তিনি শতবর্ষে পদার্পণ করবেন। করোনা মোকাবিলায় তার এই প্রয়াসে অনেকে অনুপ্রাণিত হতেই পারেন।

করোনা ও লকডাউনের জোড়া ফলায় সমস্যায় পড়েছে  মানুষ। সেই সব দুঃস্থ মানুষের পাশে দাঁড়াতে অনেকেই মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দান করছেন। এবার এগিয়ে এলেন সল্টলেকের বাসিন্দা ৯৯ বছরের মিহির কুমার চ্যাটার্জি (প্রাক্তন কেন্দ্রীয় সরকারি দফতরের চিফ ইঞ্জিনিয়ার)। এদিন মন্ত্রী সুজিত বসুর হাতে চেক তুলে দেন তিনি। তিনি ছাড়াও সল্টলেকের বাসিন্দা মঞ্জুষা ঘোষ এদিন তার একমাসের পেনশনের টাকা মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দান করেছেন।

এদিন সল্টলেকের ইসি ব্লকের ১৬৪ নম্বর বাড়িতে পৌঁছে যায় বিধাননগরের বিধায়ক তথা দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু। সেই বাড়িতেই থাকেন মিহির বাবু। তার বাড়িতেই এদিন চলে আসেন মঞ্জুষা দেবীও। দু’জনে একসঙ্গে সুজিত বসুর হাতে দুটি চেক তুলে দেন। মিহির বাবুর এক মাসের পেনশনের ৯০ হাজার টাকা ও মঞ্জুষাদেবী ১ লাখ টাকা তুলে দেন। তাদের দুজনেরই দাবি, একটু দেরি হলেও তাদের এই টাকা যেন দ্রুত মানুষের কাজে লাগানো হয়। মানুষের পাশে দাঁড়াতে এই টাকা দিতে পেরে তারা খুশি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here