ছবি- প্রতীকী

ডেস্ক: মর্মান্তিক! জীবনযুদ্ধে আর এই লড়াই সহ্য হল না। অবশেষে কয়েক ঘণ্টার কষ্টের পর মারা গেল গলফ গ্রিনে জিডি বিড়লা স্কুলের সামনে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার হওয়া নবম শ্রেণির ছাত্রী। উদ্ধার হওয়ার পর থেকেই এমআর বাঙ্গুর হাসপাতালে তাঁকে বাঁচানোর লড়াই চালাচ্ছিলেন চিকিৎসকেরা। কিন্তু শেষরক্ষা আর হল না। অবশেষে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করল সে।

শুক্রবার সকালেই স্কুলছাত্রীর রক্তাক্ত এবং অচৈতন্য অবস্থায় উদ্ধার হওয়ায় চাঞ্চল্য ছড়ায় দক্ষিণ কলকাতার গলফ গ্রিনে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সকালে এক কিশোরীকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন তারা। কিশোরীর মাথার তলায় ব্যাগ এবং পাশে গলার চেন পড়ে ছিল। ঘটনাস্থল দেখে পুলিশের অনুমান কেউ ধর্ষণ করে কিশোরীটিকে ফেলে দিয়ে যায়। ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্তে নেমেছে যাদবপুর থানার পুলিশ।

প্রাথমিকভাবে ছাত্রীটির পরিচয় জানতে পারা যায়নি। কারণ সে কথা বলার মতো অবস্থায় সে। স্থানীয়রাই তাঁকে নিয়ে গিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করে। তদন্তে উঠে এসেছে, আহত কিশোরী নবম শ্রেণির ছাত্রী। মেয়েটির বাবা-মা নেই, দাদু-দিদার কাছে সে মানুষ হয়েছে। গতকাল স্কুল থেকে আর বাড়ি ফিরে না আসায় মেয়েটির বাড়ির তরফ থেকে থানায় নিখোঁজ ডায়রি করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানাচ্ছেন, মেয়েটির উদ্ধার হওয়ার সময় তার পরনের জামা ও প্যান্ট রক্তে ভিজে ছিঁড়ে গিয়েছিল। মুখেও ছিল আঘাতের চিহ্ন। ঘটনায় দ্রুত গতিতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here