kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা প্রধান রাজীব কুমারের অস্বস্তি বাড়ালেন খোদ কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি শুভাশিস দাশগুপ্ত। মঙ্গলবার আগাম জামিনের মামলাটি এজলাসে উঠলে বিচারপতি রাজীবের কৌঁসুলির উদ্দেশে বলেন, ‘যান, গিয়ে আপনার মক্কেলকে বলুন আত্মসমর্পণ করতে।’

আলিপুর আদালতে আগাম জামিনের আর্জি নাকচ হয়ে যাওয়ায় হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন রাজীবের আইনজীবী। এদিন হাইকোর্টের বিচারপতি সইদুল্লা মুনসীর ডিভিশন বেঞ্চের এজলাসে রাজীবের আগাম জামিনের আর্জি জানান তাঁর আইনজীবী। এদিন সেই মামলার শুনানি করতে অস্বীকার করেন বিচারপতি। বলেন, আগামিকাল অর্থাৎ বুধবার রাজীবের মামলা শুনবেন তিনি। তখন মামলার শুনানি দ্রুত করার আবেদন জানান রাজীবের আইনজীবী। পাল্টা বিচারপতি সইদুল্লা মুনসী প্রশ্ন করেন, এত তাড়াহুড়োর কী আছে? উত্তর আসে, নিম্ন আদালতে তাঁর মক্কেলের জামিনের আর্জি খারিজ হয়েছে এবং ছুটির মেয়াদও শেষ হচ্ছে। তখন বিচারপতি শুভাশিস দাসগুপ্ত বলেন, ‘যান, গিয়ে আপনার মক্কেলকে আত্মসমর্পণ করতে বলুন।’ একই সঙ্গে জানানো হয়, আগামিকাল দুপুর দু’টোয় এই মামলার শুনানি হবে। তবে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হলেও সেখানে রাজীব রেহাই পাবেন কিনা তা নিয়েও প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

অন্যদিকে রাজীবের উদ্দেশে গোটা রাজ্যজুড়ে তল্লাশি অব্যাহত রয়েছে সিবিআইয়ের। এদিনও রাজীবের খোঁজে মেচেদায় যায় সিবিআই টিম। আজ সকালে সিডিও থেকে বের হয় সিবিআইয়ের ৫ সদস্যের টিম। এলাকার বিভিন্ন হোটেল সম্পর্কে খোঁজ খবর করেন সিবিআই আধিকারিকরা।

ফলে এই মুহূর্তে মহাসঙ্কটে রয়েছেন কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা প্রধান। সিবিআই তাঁকে তন্ন তন্ন করে খুঁজে চলছে শহর থেকে রাজ্যের নানা প্রান্তে। রাজীবও নিজের আইনজীবীর মাধ্যমে একের পর এক আইনি ঘুঁটি সাজাচ্ছেন। সিবিআইকে মেল করে তিনি জানিয়েছেন, ৩০ সেপ্টেম্বরের পরই তদন্তের মুখোমুখি হওয়া সম্ভব তাঁর পক্ষে। একই সঙ্গে বাড়তি ৫ দিনের ছুটিও চেয়ে নিয়েছেন তিনি। বিশেষজ্ঞ মহলের ধারণা, আদালতের রক্ষাকবজ ছাড়া কোনও ভাবেই সিবিআইয়ের সম্মুখীন হতে চাইছেন না রাজীব। কেননা তখন তাঁকে গ্রেফতার করে নেওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। ফলে আদালত রাজীবকে আদৌ রক্ষাকবজ দেয় কিনা ও রাজীব প্রকাশ্যে আসেন কিনা তার জন্য আরও সময় অপেক্ষা করতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here