ডেস্ক: সমুদ্রপথে মুম্বই পাড়ি দিয়েই ২৬/১১-র অভিশপ্ত রাতে স্বপ্ননগরী রক্তাক্ত করেছিল পাক জঙ্গিরা। ফের একই ধরণের ঘটনার পুনরাবৃত্তির আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। সমুদ্রপথে জঙ্গিদের আসার আশঙ্কায় তটনগরী গোয়া জুড়ে জারি হয়েছে হাই অ্যালার্ট। এছাড়াও উপকূলবর্তী সকল ক্যাসিনো ও পাব-হোটেল সহ ট্রলার, নৌকা ইত্যাদির ক্ষেত্রেও জারি হয়েছে হাই অ্যালার্ট।

রাজ্যের বন্দর মন্ত্রী জয়েশ সালগাঁওকর সংবাদ মাধ্যমকে এই আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন। গোয়েন্দা সূত্র মারফৎ খবর, গোয়ায় যে কোনও সময় জঙ্গি হামলা হতে পারে। মুম্বই হামলার ছকেই মাছ ধরার ট্রলারের সাহায্য নিয়ে ভারতে আসার চেষ্টা করছে জঙ্গিরা। এই সন্দেহ আরও দৃঢ় হয়েছে কারণ, সম্প্রতি করাচিতে ভারতীয় মৎস্যজীবীদের একটি নৌকা আটকায় জঙ্গিরা। কিন্তু এরপর স্বভাব বিরুদ্ধভাবে নৌকাটিকে ছেড়ে দেওয়া হয়। এখানেই আশঙ্কার মেঘ দেখছেন গোয়েন্দারা। তাদের অনুমান, ওই নৌকার মধ্যেই ঘাপটি মেরে থাকতে পারে জঙ্গিরা। তাই যে সমস্ত নৌকা, জাহাজ ও মাছ ধরার ট্রলার বন্দরে ঢুকছে সেগুলিতে কড়া তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

গোয়া ছাড়াও, মুম্বই ও গুজরাতের মত জায়গাগুলি জঙ্গিদের হামলার লক্ষ্যে থাকতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। গোয়া পর্যটন বিভাগের বন্দর কর্তৃপক্ষও জানিয়েছে, তাদের কাছে সম্ভাব্য জঙ্গি হামলার ব্যাপারে গোয়েন্দা সূত্রে তথ্য এসেছে। ফলে ২৬/১১-র কায়দায় যাতে ফের কোনও জঙ্গি হামলা না হয় তা আটকাতে কোমর বেঁধে নেমে পড়েছে পুলিশ ও নিরাপত্তারক্ষীরা।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here