‘রাজ্যের পাওনা আছে তাই দিল্লি যাচ্ছি, এত আলোচনার কী আছে!’ এয়ারপোর্টে বললেন মমতা

0
920
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: একদিকে সিবিআই হন্যে হয়ে খুঁজছে প্রাক্তন নগরপাল রাজীব কুমারকে। অন্যদিকে আচমকাই ‘রাজ্য সরকারের দাবি-দাওয়া’ নিয়ে দিল্লি উড়ে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আপাতভাবে এই দুই ঘটনার কোনও যোগসূত্র নেই, কিন্তু কোথাও গিয়ে একটা সন্দেহের গন্ধ ঠেকেছে রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মনে। কারণটা খুবই সঙ্গত। যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজীব কুমারকে ‘বাঁচাতে’ ধর্নায় বসেছিলেন, তিনিই এই সঙ্গিন মুহূর্তে কেন দিল্লি উড়ে যাচ্ছেন?

তবে এদিন দিল্লি উড়ে যাওয়ার আগে দমদম বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে নানা জল্পনায় জল ঢালার চেষ্টা করলেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘আমি তো ৩৬৫ দিনই কলকাতায় থাকি। কোথাও তো যাই না। কিন্তু যেহেতু একটা দায়িত্বে আছি, রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, সংসদ সব দিল্লিতে রয়েছে; তাই রাজ্যের কাজে কখনও কখনও যেতে হয়। এবার আমি যাচ্ছি কারণ রাজ্যের ব্যাপারে আমার কিছু টাকা পাওনা আছে। এছাড়া ব্যাঙ্ক, রেল, এয়ার ইন্ডিয়া, বিএসএনএল এগুলোতে অনেক প্রবলেম আছে। সুযোগ পেলে এদের কথাগুলো বলতে পারব। আমার রাজ্যের নাম পরিবর্তনের ব্যাপারটাও আছে। এ নিয়ে এত আলোচনার কী আছে।’

বস্তুত মুখ্যমন্ত্রীর সফর ঘিরে গতকাল থেকেই রাজনৈতিক মহলে চাপানউতোর তুঙ্গে। সূত্রের খবর বুধবার বিকেলে মুখোমুখি বৈঠকে বসবেন প্রধানমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রী। আচমকা মমতার দিল্লি যাওয়ার সিদ্ধান্ত ও তাতে মোদীর রাজী হয়ে যাওয়া দেখে সন্দেহের গন্ধ পাচ্ছেন অধীর ও সোমেনরা। রাজীবকে বাঁচাতে মমতা ‘সেটিং’ করতে মোদীর সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছেন বলে অভিযোগ তোলা হচ্ছে। যদিও এদিন ফের একবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্পষ্ট করে দিয়েছেন তাঁর দিল্লি যাওয়ার কারণ। তবে তা মানতে নারাজ বিরোধীরা। তাদের সাফ দাবি, রাজীবকে ‘রক্ষাকবজ’ পাইয়ে দিতেই দিল্লিতে মোদীর সঙ্গে ‘গোপনে বৈঠক’ সারবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here