ডেস্ক: আর কিছুদিন পরেই সুপ্রিমকোর্টে শুরু হবে রাম মন্দির শুনানি। ঠিক তাঁর আগেই রাম মন্দির ইস্যুতে বিতর্কিত মন্তব্য করে শিরোনামে চলে এলেন কংগ্রেস নেতা শশি থারুর। রাম মন্দির ইস্যুতে শশির দাবি, ‘প্রকৃত হিন্দুরা অযোধ্যাতে রামমন্দিরের নির্মাণ কখনই চাইবে না।’ কংগ্রেস নেতার এহেন মন্তব্যের পরই শশিকে মাধ্যম করে রাজনৈতিক মাঠে নেমে পড়ল বিজেপি। আসন্ন লোকসভার ঠিক আগে শশি যে এক বড় বিতর্ক তৈরি করল তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

এদিন সাংবাদিকদের সামনে বাবরি মসজিদ ও রাম মন্দির ইস্যুতে বলেন, ‘কোনও প্রকৃত হিন্দু কখনই চাইবে না কারও উপাসনা স্থল ভেঙে সেখানে রামমন্দির তৈরি হোক।’ উল্লেখ্য, আগামী ২৯ অক্টোবর থেকে শুরু হচ্ছে রামমন্দির ঠিক তার আগে শশির এহেন বয়ান নিশ্চিতভাবেই সমস্যার বলেই অনুমান করা হচ্ছে। এদিকে শশির এই বক্তব্যের পরই বিজেপি নেতা সুব্রহ্মণ্য স্বামীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘ভোটের আগে শশির তথা কংগ্রেসের বিপদ বাড়ল।

সাম্প্রতিক সময়ে ধর্মের ধ্বজা তুলে দেশজুড়ে বিজেপির নৌকা যেভাবে তরতরিয়ে এগিয়ে চলেছে, তাতে ঘুম ছুটেছে কংগ্রেস। হাওয়ার গতি বুঝে ইতিউতি ধর্মের পাল বেশ খাড়া করেছে কংগ্রেস। সম্প্রতি, কংগ্রেস সভাপতির বারে বারে মন্দির ভ্রমণ থেকে শুরু করে কৈলাস যাত্রা তাঁরই উদাহরণ বলে দাবি করেছে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। মধ্যপ্রদেশের মতো রাজ্যে বিধানসভা ভোটের আগে বিজেপির সঙ্গে কম্পিটিশান করে গোমাতার সেবা নিয়ে পড়েছে কংগ্রেস। এরই মাঝে, যখন রাম মন্দির ইস্যুতে মুখর হয়ে উঠেছে দেশের বিভিন্ন ধর্মীয় সংগঠনের পাশাপাশি বিজেপির তাবড় তাবড় নেতৃত্ব, তার মাঝে শশি থারুর রাজনীতির মাঝনদীতে কংগ্রেসের নৌকাটাকে বেশ খানিকটা কাত করে দিলেন বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here