ডেস্ক : বিখ্যাত তবলা বাদক লাচ্চু মহারাজ ওরফে লক্ষ্মী নারায়ণ সিং-এর জন্মবার্ষিকী উদযাপন করতে গুগল নিজস্ব ডুডল তৈরি করেছে আজ। ১৯৪৪ সালের ১৬ অক্টোবর সঙ্গীতশিল্পীদের পরিবারেই জন্মগ্রহণ করেন লাচ্চু মহারাজ। বাবা বাসুদেব মহারাজের কাছেই তবলায় হাতেখড়ি হয় তাঁর। বাবার কাছে প্রশিক্ষণের সময় থেকেই তবলায় তাঁর অসামান্য পারদর্শীতা শ্রোতা-দর্শকদের সামনে তুলে ধরেন তিনি। তাঁর সেই অবিস্মরণীয় কীর্তিকে পাথেয় করে গুগল আজ উৎসর্গ করেছে নিজস্ব একটি ‘ডুডল’। শিল্পী সাজিদ শেখের তৈরি ডুডল দিয়ে গুগল আজ তাঁর জন্মবার্ষিকী উদযাপন করছে। নীল, লাল, হলুদ এবং সবুজ গুগল লোগোর প্রাথমিক রঙগুলি দিয়েই লাচ্চু মহারাজের ডুডলটি তৈরি করেছেন তিনি।

বংশপরম্পরায় প্রাকৃতিক ভাবেই শিশু বয়স থেকেই তবলায় সঙ্গে সখ্যতা দেখে মুগ্ধ হন সেই সময়ের বিখ্যাত তবলা বাদক আহমেদ জান, লাচ্চু মহারাজের সেই সময় বয়স ছিল মাত্র আট বছর। নিজের একক উপস্থাপনায় লাচ্চু মহারাজ ছিলেন অদ্বিতীয়ম। তাঁর সমসাময়িক সকল শিল্পীদের সঙ্গেই তবলায় সঙ্গত করেছেন তিনি। তার পাশাপাশি তালবাদ্যে নিজের একক উপস্থাপনা তাঁকে অবিস্মরণীয় করে রাখবে।

তবলায় লাচ্চু মহারাজের কঠোর পরিশ্রমের প্রসঙ্গে বিশিষ্ট শাস্ত্রীয় সঙ্গীত গায়িকা গিরিজা দেবী বলেন, “ঘণ্টার পর ঘণ্টা পুনরাবৃত্তি না করেই নতুন ঠাট, টুকরা বাজাতেন তিনি, শ্রোতারা মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে শুনতেন।” গান ও তবলায় তাঁর অসামান্য অবদানের জন্য .১৯৫৭ সালে শিল্পীদের জন্য সর্বোচ্চ পুরস্কার হিসেবে ‘সঙ্গীত নাটক আকাদেমি’ পুরস্কার লাভ করেন লাচ্চু মহারাজ। সারা জীবন ধরে পরম প্রশান্তি নিয়ে শ্রোতাদের উদ্দেশ্যে নিজের আত্মাকে উৎসর্গ করেছেন কিংবদন্তী এই শিল্পী।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here