ডেস্ক: শনিবার মোহনবাগানের তরফ থেকে গোষ্ঠ পালের পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছিল তাঁর পাওয়া পুরস্কারগুলি। কিন্তু আশ্চর্যের বিষয় সেই পুরস্কার গুলির মধ্যে নেই পদ্মশ্রী পুরস্কার। শুধু পদ্মশ্রীই নয়, এই না- এর তালিকাটা অনেকটাই দির্ঘ।

পরিবারকে ফেরৎ দেওয়া পুরস্কারগুলির মধ্যে নেই আটটি রৌপ্য পদক, চারটে স্মারক, একটা রৌপ্য মানপত্র, তালগাছ ও বাঘ চিহ্ন যুক্ত মোহনবাগান ক্লাবের প্রথম স্মারক, একটা স্মরণিকা এবং নেই একটি জীবনীপঞ্জি। স্বভাবতই প্রশ্ন উঠছে, এই সম্মান বা পুরস্কারগুলি গেল কোথায়। শতাব্দী প্রাচীন ক্লাবের কিংবদন্তী এক ফুটবলারের পুরস্কার গায়েব হয় কী করে? এরূপ প্রশ্ন উঠছেই। উল্লেখ্য, ১৯৯২ সালে গোষ্ঠ পালের শেষ ইচ্ছানুযায়ী তাঁর পুত্র শ্রী নিরাংশু পাল ক্লাবকে মিউজিয়াম বানানোর উদ্দেশ্যে সেই সমস্ত সব পুরস্কার দান করেছিলেন। মিউজিয়াম তো দূর অস্ত, এখন খুঁজেই পাওয়া যাচ্ছে না পুরস্কারগুলি। কিছুদিন আগেই গোষ্ঠ পালের পরিবারের তরফ থেকে পুরস্কারগুলি ফেরত চাওয়া হয়েছিল। সেই মতো পুরস্কার ফিরিয়ে দেওয়া হয় পরিবারকে। দুঃখের বিষয়, ‘না’- এর তালিকা বেশ দির্ঘ।

 

এমনিতেই ক্লাব কর্তৃপক্ষের উপর বেজায় চটে রয়েছেন সমর্থকদের একাংশ। তার উপর আবার এই ঘটনা। আগুনে ঘৃতাহুতির মতো। পরিবারের তরফ থেকে বলা হয়েছিল, ক্লাব না পারুক অন্তত রাজ্য সরকারকে দিয়ে একটি মিউজিয়াম করা হোক। যাতে জনসাধারণ তথা দর্শকরা তা দেখতে পারেন। কোথায় গেল পদ্মশ্রী পদক সহ অন্যান্য পুরস্কার? সেগুলো নাকি পাওয়া যাচ্ছে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here