ছাত্রদের প্রবল চাপে অবশেষে কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রভোটে সম্মতি সরকারের

0
partha chatterjee

মহানগর ওয়েবডেস্ক: শুধু চার বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র সংসদ নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত থেকে সরে এলো রাজ্যসরকার। তৃণমূল সহ ছাত্র সংগঠনের মধ্যে প্রবল অসন্তোষের আঁচ পেয়ে সব কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়েই ছাত্র সংসদ নির্বাচন করানোর সিদ্ধান্ত নিতে এক রকম বাধ্য হল রাজ্যসরকার।

বৃহষ্পতিবার আপাতত যাদবপুর, প্রেসিডেন্সি সহ চার বিশ্ববিদ্যালয়ে(যাদের অধীনে কোনও কলেজ নেই) ছাত্র ভোট করানোর কথা ঘোষণা করেছিলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। শুক্রবার নবান্নে তৃণমূল কংগ্রেস ছাত্র পরিষদের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের পর সেই সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের কথা জানান তিনি। এদিন টিএমসিপি রাজ্য নেতৃত্বের সঙ্গে বেশ কিছুক্ষন বৈঠক করেন শিক্ষামন্ত্রী। সূত্রের খবর, সেই বৈঠকেও শিক্ষামন্ত্রীর কাছে সব কলেজ, বিশ্ববিদ্যলয়ে ছাত্রভোট দাবি করে টিএমসিপি নেতৃত্ব। এর পরেই সব প্রতিষ্ঠানেই অবিলম্বে ছাত্রভোট করা হবে বলে জানান শিক্ষামন্ত্রী। এর জেরে ডান-বামপন্থী নির্বিশেষে সব ছাত্র সংগঠনই নিজেদের জয় দেখছে। প্রসঙ্গত, রাজ্যে শেষ বার ছাত্রভোট হয়েছিল ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে। ছাত্র সংসদের নির্বাচন ঘিরে বিভিন্ন কলেজে অশান্তির প্রেক্ষিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে অরাজনৈতিক ছাত্র কাউন্সিল গড়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়। এই মর্মে বিধানসভায় পাশ হয় বিল। কিন্তু এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতায় সব হয় টিএমসিপি সহ সব ছাত্র সংগঠন।

এদিন শিক্ষামন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘আগামী ১৪ অথবা ১৫ নভেম্বর মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি এই নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস ছাত্র পরিষদের রাজ্য ও জেলাস্তরের নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করবেন। তারপরেই নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা করা হবে। কিভাবে নির্বাচন করানো হবে তা নিয়ে রাজ্যের তরফে পুলিশ প্রশাসনের সঙ্গেও কথা বলা হবে।’ বৃহষ্পতিবার আপাতত রাজ্যের চারটি বিশ্ববিদ্যালয়ে (যাদের অধীনে কোনও কলেজ নেই) ছাত্রভোট করার নির্দেশ জারি করেছিল উচ্চশিক্ষা দফতর। সেই নির্দেশিকায় বলা হয়েছিল, ছাত্র ইউনিয়ন বা কাউন্সিল তৈরির জন্য যাদবপুর, প্রেসিডেন্সি, রবীন্দ্রভারতী ও ডায়মন্ড হারবার মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রভোট করতে পারে। এদিন সেই সিদ্ধান্ত বদলে সব কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভোট করানো হবে বলে জানালেন শিক্ষামন্ত্রী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here