মহানগর ওয়েবডেস্ক: আবেদন করা হয়েছিল আগেই। ভারত-চিন উত্তপ্ত সীমান্ত পরিস্থিতিকে গুরুত্ব দিয়ে বৃহস্পতিবার রাশিয়া থেকে ৩৩ টি নতুন যুদ্ধ বিমান কেনার অনুমতি দিয়ে দিল কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। প্রতিরক্ষা বাহিনীর তিন ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় যুদ্ধাস্ত্র কিনতে ৩৮৯০০ কোটি টাকার মঞ্জুর করেছে অর্থমন্ত্রক। সীমান্তবর্তী পরিস্থিতিকে গুরুত্ব দিয়েই প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের তরফে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে অনুমান বিশেষজ্ঞদের।

কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের তরফে বৃহস্পতিবার জারি করা এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, বর্তমান পরিস্থিতিতে সেনার প্রয়োজনকে গুরুত্ব দিয়ে প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং এর সভাপতিত্বে হওয়া এক বৈঠকে একাধিক আবেদন মঞ্জুর করা হয়েছে। জানা গিয়েছে, বায়ু সেনার জন্য ৩৩ টি যুদ্ধ বিমান কেনা হচ্ছে রাশিয়া থেকে। যার মধ্যে রয়েছে ১২ টি su-30mki ও ২১ টি mig-29। এছাড়াও বায়ুসেনার হাতে থাকা আরও ৫৯ টি mig-29 যুদ্ধবিমানকে উন্নত প্রযুক্তি সম্পন্ন করা করা হবে। এই দুই ক্ষেত্রে বরাদ্দ করা হয়েছে ১৮১৪৮ কোটি টাকা। বাকি টাকা বায়ু সেনা, নৌ সেনা ও স্থল সেনা নিজেদের প্রয়োজন অনুযায়ী কিনবে অস্ত্রশস্ত্র ও মিসাইল সিস্টেম।

শুধু তাই নয় ৩৮ হাজার কোটি টাকার এই বিশাল প্রজেক্টের ম্যানুফ্যাকচারিং ক্ষেত্রে দেশীয় প্রযুক্তিতে গুরুত্ব দিতে চলেছে সরকার। প্রধানমন্ত্রীর আত্মনির্ভর ভারতকে গুরুত্ব দিয়ে এই বিশাল প্রজেক্টের ম্যানুফ্যাকচারিংয়ের কাজের বরাত দেওয়া হবে দেশীয় সংস্থাগুলিকে। এই পুরো প্রকল্পের ৮০ শতাংশ প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম ম্যানুফ্যাকচারিং করা হবে ভারতে। ইতিমধ্যেই দেশীয় সংস্থাগুলিকে নিজেদের প্রযুক্তি হস্তান্তর করেছে ডিআরডিও। দেশীয় সংস্থাগুলোর সঙ্গে যে সমস্ত প্রযুক্তি হস্তান্তর করা হয়েছে সেগুলি হল পিনাকা রকেট লঞ্চার, বিএমপি অস্ত্রশস্ত্র, সরঞ্জামের আপগ্রেডেশন, সেনাবাহিনীর সফ্টওয়্যার ভিত্তিক রেডিও। এছাড়াও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে নৌ-বিমান বাহিনীর জন্য দূরপাল্লার ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র সিস্টেম সহ অন্যান্য ক্ষেপণাস্ত্রগুলি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here