kolkata news
Highlights

  • রাজ্যের হাতে থাকা দুধ কোম্পানির শেয়ার বেসরকারি সংস্থাকে বিক্রি করা নিয়ে আগেই দূর্নীতির অভিযোগ উঠেছে রাজ্যের তৃণমূল কংগ্রেস সরকারের বিরুদ্ধে
  • দুধের সহায়ক মূল্য বাড়াতে অর্থ দপ্তরের কাছে আর্জি জানিয়েছে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দপ্তর
  • অবস্থা বেশি দিন চললে বাজারের পুরোটাই বেসরকারি সংস্থার দখলে চলে যাবে বলে আশঙ্কা ওই দপ্তরের কর্তাদের

মহানগর ওয়েবডেস্ক: রাজ্যের হাতে থাকা দুধ কোম্পানির শেয়ার বেসরকারি সংস্থাকে বিক্রি করা নিয়ে আগেই দূর্নীতির অভিযোগ উঠেছে রাজ্যের তৃণমূল কংগ্রেস সরকারের বিরুদ্ধে। এবার আরও এক রাষ্ট্রায়াত্ব দুধ উত্পাদক সংস্থা মাদার ডেয়ারির দুধের যোগান কমাতে বাধ্য করে পরোক্ষে তার ব্যবসা বেসরকারি সংস্থার হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। রাজ্য সরকার দুধের সহায়ক মূল্য না বাড়ানোয় প্রতিযোগী বেসরকারি সংস্থা চাষিদের কাছ থেকে বেশি দামে দুধ কিনে নিচ্ছে। ফলে যোগানে ঘাটতি সামলাতে হিমসিম খাচ্ছে সরকারি সংস্থা। দুধ না পেয়ে মাদার ডেয়ারি স্টল থেকে খালি হাতে ফিরতে হচ্ছে ক্রেতাদের। বাজার দখল করছে প্রতিযোগী বিভিন্ন বেসরকারি দুধ সংস্থা। এমত অবস্থায় অবিলম্বে দুধের সহায়ক মূল্য বাড়াতে অর্থ দপ্তরের কাছে আর্জি জানিয়েছে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দপ্তর। কারণ এই অবস্থা বেশি দিন চললে বাজারের পুরোটাই বেসরকারি সংস্থার দখলে চলে যাবে বলে আশঙ্কা ওই দপ্তরের কর্তাদের।

প্রাণী সম্পদ বিকাশ দপ্তর সূত্রে খবর, সহায়ক মূল্য নিয়ে এই জটিলতায় বিগত মাসদুয়েক ধরে রাজ্যে উত্পাদিত দুধের সিংহভাগই ভিনরাজ্যে চলে যাচ্ছে। রাজ্যে উৎপাদিত দুধের অনেকটাই চাষিদের কাছ থেকে বেশি দামে কিনে নিচ্ছে আমুল। ফলে দুধের যোগান পেতে সমস্যায় পড়ছে মাদার ডেয়ারি। আমুল লিটার প্রতি ৩২ টাকা দিয়ে রাজ্য থেকে দুধ কিনছে। এদিকে রাজ্য সরাকারের দুধের নির্ধারিত সহায়ক মূল্য লিটার প্রতি ২৭ টাকা ৬০ পয়সা। স্বাভাবিক ভাবেই উত্পাদকরা এখন মাদার ডেয়ারির বদলে বেশি টাকায় আমুলকে দুধ বিক্রি করতে আগ্রহী।

এখনও দুধের মান ও চাহিদার নিরিখে রাজ্যে প্রথম স্থানে রয়েছে মাদার ডেয়ারি। কিন্তু দুধের যোগান কম থাকাতে দৈনন্দিন উত্পাদন কমাতে একরকম বাধ্যই হচ্ছে তারা। রাজ্যে দুধ উত্পাদকের সংখ্যা ১০ হাজার। তাঁদের কাছ থেকে প্রতিদিন ২ লক্ষ লিটার দুধ কিনত মাদার ডেয়ারি। কিন্তু ইদানিং ১ লক্ষ লিটারের বেশি দুধ উত্পাদন করতে পারছে না মাদার ডেয়ারি। বিপাকে পড়েছেন দুধের ডিস্ট্রিবিউটার ও ক্রেতারাও। ক্রেতাদের চাহিদা মত দুধের যোগান দিতে না পারায় ব্যবসা হারাচ্ছেন তাঁরা। রাজ্যের প্রাণিসম্পদ বিকাশ দপ্তরও এই সমস্যা সম্পর্কে ওয়াকিবহাল। তাই লিটার প্রতি দুধের সহায়ক মূল্য ৪ টাকা বৃদ্ধির সুপারিশ ইতিমধ্যেই নবান্নে পৌছে গিয়েছে।

নবান্ন সূত্রে খবর, মাদার ডেয়ারি দুধের দাম বাড়ানো হবে না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। ফলে সহায়ক মূল্য বৃদ্ধি করা ছাড়া উপায় নেই। কিন্তু এখনও পর্যন্ত এই বিষয় নিয়ে চুপচাপ অর্থ দপ্তরের কর্তারা। কাজেই অভিযোগ উঠেছে পরোক্ষে রাজ্যে বেসরকারি দুধ সংস্থার ব্যবসা বৃদ্ধির পথ খুলে দিচ্ছে নবান্ন। ডকে তুলে দিতে চাইছে রাষ্ট্রায়ত্ব মাদার ডেয়ারিকে।

এর আগে মেট্রো ডেয়ারির ৪৮ শতাংশ শেয়ার বিক্রি নিয়ে রাজ্য সরকারকে কাঠগড়ায় তুলেছে বিরোধী বাম-কংগ্রেস এবং বিজেপি। তাঁদের অভিযোগ সরকার অনেক কমদামে সরকারি দুধ সংস্থার অংশীদারি বেসরকারি সংস্থার হাতে তুলে দিয়েছে। তার কয়েকদিন পরেই ওই সংস্থা চারগুন দামে তাদের শেয়ার অন্য সংস্থাকে বিক্রি করে দেয়। ওই ঘটনার সিবিআই তদন্তেরও দাবি করেছে বিজেপি। এবার উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে মাদার ডেয়ারির ব্যবসা কমিয়ে ভিন রাজ্যের সংস্থাকে রাজ্যে দুধের বাজার দখলের পথ পরিষ্কার করে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছেন তাঁরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here