MPV

ডেস্ক: মাও অধ্যুষিত এলাকা হোক বা সীমান্ত, মৃত্যুকে তুচ্ছ করে এই সমস্ত জায়গায় সর্বদা সজাগ ভারতীয় সেনা। তবে দুর্ঘটনা যে ঘটে না তা নয়। দিবারাত্র কর্তব্যে অবিচল সেনার রক্ত ক্ষরণ রুখতে এবার তৎপর হল প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। নকশাল ও সীমান্তবর্তী এলাকায় সেনাকে আরও সুরক্ষা দিতে আরও বেশি পরিমাণ ল্যান্ডমাইন প্রতিরোধক যান সেনার জন্য বরাদ্দ করতে চলেছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। পাশাপাশি, জঙ্গি দমনের জন্য দেশের জাতীয় নিরাপত্তারক্ষী(এনএসজি)-এর জন্য বরাদ্দ করা হচ্ছে ৭ টি উন্নত প্রযুক্তির চালক বিহীন রিমোর্ট চালিত যান।

জানা গিয়েছে, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে আধা সেনা, সিআরপিএফ, বিএসএফের জন্য ইতিমধ্যেই বরাদ্দ করা হয়েছে ৬১৩.৯৪ কোটি টাকা যা দিয়ে কেনা হবে ল্যান্ডমাইন প্রতিরোধক গাড়ি, বুলেট প্রুফ জ্যাকেট ও অ্যাম্বুলেন্স। পাশাপাশি, ১৬.৪৮ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে এনএসজির জন্য। যে টাকায় কেনা হবে ৭ টি উন্নত প্রযুক্তির চালক বিহীন রিমোর্ট চালিত যান। এই যানের মাধ্যমে কোনও দুর্গতকে ঘরের মধ্য থেকে উদ্ধার, বাস রেল বা মেট্রো স্টেশনে কোনও মানুষ ছাড়াই আইডির মতো বোমা নিষ্ক্রিয় করা সম্ভব হবে। অন্যদিকে জম্মু কাশ্মীর ও মাওবাদী অধ্যুষিত এলাকাগুলিতে আধা সেনার কাজের সুবিধার্থে ল্যান্ডমাইন প্রতিরোধক যান ও বুলেট প্রুফ জ্যাকেট অত্যন্ত প্রয়োজনীয় একটি বিষয়।

এনএসজির জন্য উন্নত প্রযুক্তির যে ৭ টি চালক বিহীন গাড়ি কেনা হচ্ছে তা যুদ্ধের জন্য বিশেষভাবে প্রস্তুত করা। ১০ জন ব্যক্তিকে বহন করার পাশাপাশি ২.২ টন পর্যন্ত ওজন বহন করতে সক্ষম এই যান। এর সর্বোচ্চ গতি ১১০ কিলোমিটাত্র প্রতি ঘন্টা। একবার ডিজেল ভরা হলে এই গাড়ি ১ হাজার কিলোমিটার অনায়াসে চলতে সক্ষম। সেনার তরফে আসা করা হচ্ছে এই ধরণের গাড়ি আগামী দিনে কোনও মানুষ ছাড়াই জঙ্গি উপদ্রুত এলাকা বা মাওবাদী অধ্যুসিত এলাকায় গিয়ে তাঁদের নিকেশ করে আসতে সক্ষম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here