‘সামনে লোক ছিল, ৪ ঘণ্টা বসেও কিছু দেখতে পাইনি’! কার্নিভাল নিয়ে অপমানিত রাজ্যপাল

0
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: দুর্গাপুজোর কার্নিভাল অনুষ্ঠিত হওয়ার পরেই বিতর্কের ঝড় বয়ে যায়। জানা যায়, মূলমঞ্চেই স্থান হয়নি রাজ্যপালের। তাঁকে বসতে দেওয়া হয় মূল মঞ্চ থেকে বেশ কিছুটা দূরে তৈরি ছোট একটি বিচ্ছিন্ন মঞ্চে। এনিয়ে জলঘোলা শুরু হতে থাকলেও পরবর্তী সময়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হন জগদীপ ধনকড়। সকলকে অবাক করে দিয়ে মন্তব্য করেন, মমতার কৌশল দেখে তিনি মুগ্ধ! এমনকি মুখ্যমন্ত্রীকে প্রশ্নও করেন যে, ‘এতকিছু কীভাবে সামলান।’ সেই রাজ্যপালেরই হঠাৎ ভোলবদল। কার্নিভাল প্রসঙ্গে এবার বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন তিনি।

রাজ্যপাল জানিয়েছেন, মূলমঞ্চে তাঁকে বসতে দেওয়া হয়নি। পাশের ছোট মঞ্চ যেখানে বাকিরা ছিল, সেখানে জায়গা দেওয়া হয়েছিল তাঁকে। সামনে প্রচুর লোক ভিড় করে ছিল বলে তিনি কিছুই দেখতে পাননি বলে দাবি করেন। জগদীপ ধনকড়ের কথায়, ‘৪ ঘণ্টা বসেও কিছু দেখতে পাইনি’। এই দাবি করে তিনি বলেন, বাংলায় কার্যত গণতন্ত্রের কালো অধ্যায় চলছে। রাজ্যপালের পদ হল সাংবিধানিক পদ। পদেরই মাহাত্ম্য, ব্যক্তি সেখানে বড় নয়। তাঁর সঙ্গে কি এমন আচরণ করা যায়? প্রশ্ন তোলেন তিনি।

এখানেই থেমে থাকেননি রাজ্যপাল। তিনি আরও বিস্ফোরক অভিযোগ এনে বলেন, তাঁকে অপমান করাই ছিল মূল উদ্দেশ্য! কোনও ভুলবশত ভাবে নয়, উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে তাঁকে দুর্গা কার্নিভালে ডেকে এনে অপমান করা হয়েছে। সরকারের একপক্ষের চক্রান্তের কারণেই এই ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি তাঁর। যদিও তৃণমূলের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, আলাদা মঞ্চ রাজ্যপালকে উৎসর্গ করে বানানো হয়েছিল। তা নিয়ে যদি রাজ্যপাল এই ধরনের মন্তব্য করেন তবে তা খুবই দুঃখজনক ব্যাপার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here