মহানগর ওয়েবডেস্ক: সোজা লাদাখ থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর খোঁচা খেয়ে আর চুপ থাকতে পারল না চিন। এদিন একবারও চিনের নাম করেননি মোদী। কিন্তু তাঁর বক্তব্যেই যে কাজ হয়েছে তা স্পষ্ট। পাল্টা জবাব দিতে তেড়েফুঁড়ে নেমেছে চিন। মোদীর মন্তব্যকে ‘ভিত্তিহীন এবং অতিরঞ্জিত’ বলে তারা আখ্যা দিয়েছে।

ঘটনা হচ্ছে, গালোয়ান ঘাঁটিতে ভারত-চিন সেনার সংঘর্ষের পর এদিন সকালে আচমকাই লাদাখে সারপ্রাইজ ভিজিট করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সঙ্গে ছিলেন সেনাপ্রধান। সেখানে গিয়ে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেন, এরপর ভাষণ দিতে উঠে চিনের সাম্রাজ্য বিস্তার করার মানসিকতাকে একহাত নেন তিনি। বলেন, ‘বিস্তারবাদের সময় পেরিয়ে চলে এসেছে অনেক আগে, এটা বিকাশবাদের সময়। ইতিহাস সাক্ষী রয়েছে, বিস্তারবাদী শক্তিরা হয় হেরে গিয়েছে নয়তো পিছু ফিরতে বাধ্য হয়েছে।’

প্রধানমন্ত্রীর এই মন্তব্যের কয়েক ঘণ্টা মধ্যেই পাল্টা জবাব দিতে ময়দানে নামে বেজিং। চিনা দূতাবাসের মুখপাত্র মারফৎ উত্তর দিতে বলা হয়েছে, ‘চিন শান্তিপূর্ণ আলোচনার মাধ্যমে তার ১৪টি প্রতিবেশী দেশের ১২টির সঙ্গে সীমানা নির্ধারণ করেছে। ভূখন্ডের সীমান্তকে বন্ধুত্বপূর্ণ বন্ধন তৈরির মাধ্যমে তা করা হয়েছে। ফলে চিনকে ‘বিস্তারবাদী’ হিসেবে দেখা ভিত্তিহীন।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here