national news

Highlights

  • মারণ ভাইরাসের আতঙ্কে চিনে বন্ধ জিম
  • যার জেরে বাড়িতেই ঘণ্টার পর ঘণ্টা দৌড়চ্ছেন ব্যক্তি
  • ম্যাসাজ থেরাপিস্ট ওই ব্যক্তির নাম পান সানচু

মহানগর ওয়েবডেস্কঃ করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে জবুথবু হয়ে রয়েছে চিন। মারণ ভাইরাসের আতঙ্কে ঘরবন্দি সাধারণ মানুষ। বন্ধ দোকানপাট, বন্ধ জিমও। তবে জিম বন্ধ থাকায় বেশ সমস্যায় পড়েছেন এক ‘ফিটনেস ফ্রিক’। জিম বন্ধ তো কী হয়েছে ঘরেই ঘন্টার পর ঘন্টা দৌড়ে শরীরচর্চা করছেন ওই ব্যক্তি। আর তা করেই রেকর্ড গড়ছেন তিনি। টানা ৬ ঘন্টা ধরে দৌড়চ্ছেন পান সানচু। তাতে তিনি অতিক্রম করেছেন ৪১ মাইল রাস্তা। না, ঘরের বাইরে নয় ঘরের মধ্যেই। তার উন্নত প্রযুক্তি সমৃদ্ধ ঘড়িতে দেখা যাচ্ছে ৬ ঘণ্টা ৪১ মিনিটে ৬৬ কিলোমিটার দৌড়েছেন তিনি।

বছর ৪৪ শের পান সানচুর কাছে শরীরচর্চা হল নেশার মত। আর তার মধ্যে তিনি সবচেয়ে বেশি ভালোবাসেন দৌড়তে। প্রতিদিন সকালে উঠে ঘন্টার পর ঘন্টা দৌড়ন তিনি। তবে প্রাণঘাতী নোভেল করোনা ভাইরাসের কারণে বাইরে বেরোনোর উপায় নেই। যার জেরে নিজের ড্রয়িং রুমকেই দৌড়নোর জন্য উপযুক্ত স্থান হিসেবে বেছে নিয়েছেন সানচু। তিনি জানিয়েছেন, মাঝে মাঝে কিছু মানুষ বলেন তাদের পিকনিক করতে ইচ্ছা করছে, আমার মনে হয় সেসময় আমি একশ কিলোমিটার দৌড়ে নিতে পারব।

পান সানচু আরও জানান, প্রথম প্রথম ঘরের মধ্যে দৌড়তে বেশ অসুবিধা হত তবে বেশ কয়েকদিন পর সব ঠিক হয়ে গিয়েছে। ঘরে থাকা আসবাবপত্রের চারধারে ঘুরে ঘুরে জগিং করার ভিডিও বর্তমানে ভাইরাল চিনে। নেটিজেনদের কাছে পান সানচুর শরীরচর্চার এই নতুন আইডিয়া বেশ প্রশংসিত হয়েছে ইতিমধ্যেই। পানের কথায়, দৌড়ানো হল নেশার মত, বেশ কয়েকদিন দৌড়ানো না হলে পা চুলকাতে থাকে তার।

সম্প্রতি চিনের কমিউনিস্ট সরকার একটি ক্যাম্পেইনের উদ্যোগ নিয়েছিল যেখানে তারা দেখান কীভাবে ঘরে বন্দি থাকা সত্ত্বেও মানুষ নিজেদের শরীরচর্চা করতে পারবে।

বর্তমানে চিনের বেশ কিছু প্রদেশে স্কুল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এসময় শুধুমাত্র কম্পিউটার বা মোবাইলে গেম না থেলে বাচ্চারা যাতে বাবা-মাকে কিছু কাজে সহয়তা করে এবং পাশাপাশি তাদের অবশ্যই ঘরে বসে সৃজনশীল হতে হবে, এমনটাই সরকারি বিশেষজ্ঞ ঝাও ওয়েনহুয়া এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here