hafiz saeed afp 650x400 71511664667
hafiz saeed afp 650x400 71511664667

ডেস্ক: রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদ যতই হাফিজ ও তার সংগঠনকে জঙ্গি তালিকাভুক্ত করুক না কেন, তা মানতে কোনওভাবেই রাজি নয় পাকিস্তান। বহু নাটকের শেষে এবার জঙ্গি তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হল মুম্বই বিস্ফোরণের অন্যতম চক্রি হাফিজ সইদ ও দল জামাত-উল-দাওয়া এবং ফালাহ-ই-ইনসানিয়াত ফাউন্ডেশনকে। ইসলামাবাদ হাইকোর্টের এহেন নির্দেশে ফের একবার বিশ্বের সামনে প্রকাশ পেল সন্ত্রাসবাদের জড় পাকিস্তানের আসল মানসিকতা।

পাকিস্তান সন্ত্রাসবাদের আখড়া আন্তর্জাতিক মঞ্চে এই মন্তব্য বহুবার তোলা হয়েছে ভারতের তরফে। ভারতের সেই দাবিকে স্বীকৃতি দিকে জামাত-উল-দাওয়া, ফালাহ-ই-ইনসানিয়াত ফাউন্ডেশন, লস্কর-ই-তইবা, আল-কায়দা, তেহরিক-ই-তালিবান পাকিস্তান, লস্কর ইত্যাদি সন্ত্রাসবাদী সংগঠনের পড়েছে রাষ্ট্রসংঘের কালো তালিকায়। শুরুতে আন্তর্জাতিক চাপের মুখে পড়ে হাফিজের সংগঠনকে কালো তালিকাভুক্ত করেছিল পাকিস্তানও। পাকিস্তানের সেই অডিন্যান্সে সাক্ষরও করেন প্রাক্তন পাক প্রেসিডেন্ট মামুন হোসেন। কিন্তু পরে ফের এক নয়া তালিকা প্রকাশ করেছে পাকিস্তান। আর সেই তালিকায় নাম নেই হাফিজের ওই দুই সংগঠনের।

কিন্তু কেন জঙ্গি সংগঠনের তালিকা থেকে তুলে দেওয়া হল এই দুই নাম? জানা গিয়েছে, প্রাক্তন পাক প্রেসিডেন্টের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গিয়ে ইসলামাবাদ হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেছিলেন হাফিজ সইদ। আদালতে হাফিজের আইনজীবীর তরফে জানানো হয়, আইনত এই দুই সংগঠনকে জঙ্গি তকমা দিতে গেলে যা যা করতে হয় তার কিছুই করেনি পাক সরকার। তাহলে কিভাবে একটি সমাজসেবী সংগঠনকে জঙ্গি তকমা দেওয়া হল। সেই যুক্তি মেনে নিয়ে পাক সরকারের ওই অডিন্যান্সকে বাতিল করে আদালত। যার ফলস্বরূপ আন্তর্জাতিক জঙ্গি তালিকা থেকে বাদ পড়ে হাফিজের দুই জঙ্গি সংগঠন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here