মহানগর ওয়েবডেস্ক: দীর্ঘ লকডাউন বন্য রূপ নিয়েছে মাথার চুল। ‘আনলক ১’-এ তাই হিড়িক পড়েছে চুল কাটার। কেউবা আবার ঢুঁ মারতে শুরু করেছেন পার্লারে। করোনার মাঝে এহেন পরিস্থিতিতে এবার আরও সজাগ হয়ে উঠল দক্ষিণের রাজ্য তামিলনাড়ু। সরকারের তরফে বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়ে দেওয়া হল সেলুনে চুল কাটাতে গেলে এখন থেকে আধার কার্ড বাধ্যতামূলক। রাজ্যের প্রতিটি সেলুন মালিকে চুল কাটাতে আসা প্রত্যেক ব্যক্তির নাম ফোন নাম্বার ও তার আধার কার্ড নাম্বার লিখে রাখতে হবে। যদি তা না করা হয় সেক্ষেত্রে ওই সেলুনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে সরকার।

দেশে ক্রমাগতভাবে বেড়ে চলেছে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ। এহেন পরিস্থিতিতে তামিলনাড়ুতে একজন থেকে খুলে দেওয়া হয়েছে সমস্ত সেলুন ও বিউটি পার্লার। আর সেখানেই সর্তকতা জারি করে রাজ্য সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, সেলুনে আসা প্রত্যেক গ্রাহকের, নাম ঠিকানা ফোন নম্বর আধার কার্ড নম্বর লিখে রাখবেন সেলুন মালিক। পাশাপাশি সরকারি বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ৫০ শতাংশ কর্মী (সর্বাধিক ৮ জন) নিয়ে খোলা যেতে পারবে সেলুন। কোনভাবেই সেলুনের অন্দরে এয়ার কন্ডিশনার চালানো যাবে না। প্রত্যেক গ্রাহককে মাস্ক পরে আসতে হবে। পাশাপাশি গ্রাহকের আরোগ্য সেতু অ্যাপের ডিটেলস চেক করতে হবে সেলুন মালিককে।

প্রসঙ্গত, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ছড়ানোর অন্যতম জায়গা হিসেবে দেখা হয় সেলুনকে। কেন্দ্রের নির্দেশিকা মেনে একজন থেকে রাজ্যে সেলুন খোলার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। প্রথমে গ্রাম ও পরে শহরে তোর সেলুন ও বিউটি পার্লার খোলার অনুমতি মিলেছে। তবে চূড়ান্ত সতর্কতা বিধি মেনে সেলুন চালাতে হবে বলে জানিয়ে দিয়েছে সরকার। অবশ্য দীর্ঘদিন পর সেলুন খোলার অনুমতি মেলায় খুশি তামিলনাড়ুর বাসিন্দারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here