নিজস্ব প্রতিবেদক, মেদিনীপুর: পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় ভোট গ্রহণ পর্বে বেশ কিছু নতুন সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে জেলা প্রশাসন। তার মধ্যে অন্যতম হল জেলার বিভিন্ন স্থানে প্রতিবন্ধী দ্বারা পরিচালিত ভোট গ্রহণ কেন্দ্র তৈরি করা। ওই সব ভোট গ্রহণ কেন্দ্রে প্রতিবন্ধীরাই ভোটগ্রহণের সমস্ত কাজ পরিচালনা করবেন। একইসঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে ভোটার তালিকায় নাম না তুলতে পারা সাতশো ভোটারকে তালিকাবদ্ধ করে তাদেরও ভোট প্রক্রিয়াতে নিয়ে আসার বিষয়ে বিশেষ নজর দিচ্ছে জেলা প্রশাসন। নির্বাচনী প্রক্রিয়া শুরু করার আগে সোমবার বিকেলে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সমস্ত রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিদের নিয়ে সর্বদলীয় বৈঠক করে এই কথাই জানিয়ে দিয়েছে জেলা প্রশাসন।

জেলার কালেক্টরেট হলে আয়োজিত এই প্রশাসনিক বৈঠকে সমস্ত নির্বাচনী বিধি সমস্ত রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। এর পরে সাংবাদিকদের সঙ্গে বৈঠকে জেলার চিত্র তুলে ধরেন জেলাশাসক ও পুলিশ সুপার। জেলাশাসক জানিয়েছেন, পশ্চিম মেদিনীপুরে এবার প্রায় ১৫টি বিশেষ ধরনের ভোটগ্রহণ বুথ তৈরি করা হবে। যেখানে পুরো ভোটগ্রহণ কাজটা পরিচালনা করবেন প্রতিবন্ধীরাই। প্রতিবন্ধীদের বিশেষ সম্মান দিতে জেলা প্রশাসনের এই অভিনব উদ্যোগ। খড়গপুর ও মেদিনীপুর শহরে এই বুথগুলি তৈরি করা হবে। সরকারি দপ্তরে থাকা বিভিন্ন প্রতিবন্ধী কর্মীদের এই কাজে লাগানো হবে বলে জেলা শাসক পি মোহন গান্ধী জানিয়েছেন। একই সঙ্গে ভোটদান প্রক্রিয়া থেকে প্রত্যেক বার পিছিয়ে থাকা জেলার প্রায় সাতশো লোধা শবরকে চিহ্নিত করে তাদের ভোটার তালিকাবদ্ধ করতে পেরেছে প্রশাসন। তাদের ভোট প্রক্রিয়ায় অংশ নেওয়ার ক্ষেত্রে বিশেষ দৃষ্টি দেওয়া হবে বলে জেলাশাসক জানিয়েছেন।

 

এবারে প্রতিবন্ধী ভোটারদের দিকেও বিশেষ নজর দিচ্ছে নির্বাচন কমিশন। গত পাঁচ বছর ধরে জেলার কোন বুথে কতজন প্রতিবন্ধী ভোটার রয়েছেন সেই তথ্য স্থানীয় আশা ও অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে সংগ্রহ করেছেন। ২০১৮ সালে হয়ে যাওয়া পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময়ে পশ্চিম মেদিনীপুরে ১২ হাজার প্রতিবন্ধী ভোটার ছিল। এবার সেই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৫ হাজার। পাশাপাশি জেলা শাসক এটাও জানিয়েছেন, যে বুথে প্রতিবন্ধী ভোটারের সংখ্যা বেশি সেখানে অন্তত পাঁচ জন প্রতিবন্ধী ভোটারকে প্রথমেই ভোট দেওয়ার বন্দোবস্ত করা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here