মহানগর ডেস্ক: দিল্লির পর এবার হরিয়ানা সরকারও রাজ্যে লকডাউন আরও সাত দিন বাড়াল। ১৭ মে থেকে লকডাউন উঠে যাওয়ার কথা ছিল। হরিয়ানা সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, ২৪ মে পর্যন্ত এই লকডাউন চলবে। তবে লকডাউন চললেও  এই শব্দটি ব্যবহার করতে নারাজ হরিয়ানা সরকার। এই লকডাউনকে তারা ‘মহামারি অ্যালার্ট- সুরক্ষিত হরিয়ানা’ বলে সরকার উল্লেখ করছে।

লকডাউনে হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর লাল খট্টর বাড়িতে থাকার অনুরোধ করেছিলেন রাজ্যবাসীকে। তাছাড়া জরুরি পরিষেবা ছাড়াও বেশ কিছু পরিষেবাতে ছাড় দিয়েছিলেন তিনি। তবে রাতে নাইট কারফিউ জারি করা হয়েছে। তবে আগামী এক সপ্তাহের লকডাউনে আরও কঠোর নিয়ম জারি করা হবে বলে হরিয়ানার স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন। কেন্দ্রীয় পরিবার ও স্বাস্থ্য মন্ত্রকের রিপোর্টে হরিয়ানায় গত ২৪ ঘণ্টায়  ৯ হাজার ৬৭৬ জন করোনায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। ওই সময়ের মধ্যে করোনায় মারা গিয়েছেন ১৪৪ জন। হরিয়ানায় করোনার মৃত্যুর সংখ্যা আক্রান্তের তুলনায় বেশি।

অন্যদিকে, রবিবার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর লাল খট্টর একটি কোভিড হাসপাতালের উদ্বোধন করতে যান। সেই সময় কৃষকরা তাঁকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখান। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে হরিয়ানার পুলিশ লাঠিচার্জ করেন। ঘটনায় কয়েকজন কৃষক মারা যায়। প্রায় ছয় মাস ধরে দিল্লির বিভিন্ন সীমান্তে কৃষকরা বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন। হরিয়ানা, পঞ্জাব ও উত্তরপ্রদেশের কৃষকদের একাংশ এই বিক্ষোভে সামিল হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here