‘ভারত পেঁয়াজ পাঠাচ্ছে না তাই খাচ্ছি না’, হেসেই জানালেন হাসিনা

0
hashina kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক:‘ রাঁধুনিকে বলেছি পেঁয়াজ বন্ধ’: ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করা প্রসঙ্গে দিল্লিতে ঘরভর্তি লোকের সামনে হেসেই বললেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা৷ পুজোর কথা ভেবে পশ্চিম বাংলাকে ইলিশ পাঠালাম, বদলে ভারত সরকার সেষ মুহূর্তে আমাদের পেঁয়াজ পাঠনো বন্ধ করে দিল৷ ফলে পেঁয়াজ খেতে পারছি না৷ বাংলাদেশে এখন ১০০ কেজি পেঁয়াজের দাম চলছে ১০ হাজার টাকা৷ তাই রাঁধুনীকে বলে দিয়েছি পেঁয়াজের দাম না কমা পর্যন্ত রান্নায় পেঁয়াজ বন্ধ করে দিতে৷ তাঁর এই রসিকতায় উপস্থিত দর্শকরা হেসে লুটোপুটি খেলেন৷

অতিবর্ষণের ফলে বিলম্বিত ফলনের ধাক্কায় পেঁয়াজের সরবরাহে সঙ্কোচন। তার সঙ্গে দামও ঊর্ধ্বমুখী। এই অবস্থায় গত মাস থেকে প্রতিবেশী বাংলাদেশে পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করেছে ভারত । বিশ্বের বৃহত্তম সবজি বিক্রেতা ভারতের এহেন সিদ্ধান্তের ফলে তাঁদের দেশে পেঁয়াজ সরবরাহের সমস্যার কথা বলতে গিয়ে রসিকতার আশ্রয় নিলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি দিল্লিতে এসেছেন বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের অন্তর্গত ভারতের অর্থনৈতিক সম্মেলনে যোগ দিতে। সেখানে নিজেদের দেশকে দ্রুত অর্থনৈতিক বৃদ্ধির দেশ ও ব্যবসার জন্য আকর্ষণীয় গন্তব্য বলে বর্ণনা করলেন তিনি। এরই সঙ্গে উঠে এল পিঁয়াজের প্রসঙ্গও। তিনি বলেন, ‘পেঁয়াজ পাওয়া আমাদের দেশে কঠিন হয়ে উঠেছে। আমি জানি না আপনারা রফতানি বন্ধ করলেন কেন। আমি আমার রাঁধুনিকে বলেছি পেঁয়াজ ছাড়াই খাবার বানাতে।’

ভারতে পেঁয়াজের দাম আকাশছোঁয়া৷ তাই নিজের দেশের দাম নিয়ন্ত্রণের জ্যন আচমক ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দিয়েচে৷ তবে বিষয়টা খুব বালবাবে নেয়নি বাংলাদেশ ৷ ত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কথাতে স্পষ্ট হয়ে গেল৷ তাঁর স্পষ্ট কথা,‘কোনও বিজ্ঞপ্তি দিলে ভাল হত।’ মৃদু হেসে তিনি যোগ করেন,‘এমন হঠাৎই এটা বন্ধ করে দেওয়া হল যে ব্যাপারটা খুব কঠিন হয়ে গেল। এর পরে যদি কখনও আপনারা এমন সিদ্ধান্ত নেন, আগে থেকে বিজ্ঞপ্তি দিলে খুব ভাল হয়।’ ভারত রফতানি বন্ধ করায় প্রবল সমস্যায় পড়েছে বাংলাদেশ। ঢাকায় ১০০ কেজি পেঁয়াজের দাম ১০,০০০ টাকা পেরিয়ে গিয়েছে। মায়ানমার, ইজিপ্ট, টার্কি ও চিনের সাহায্যে তারা জোগান বাড়িয়ে বাজারের মূল্য কমানোর চেষ্টা করছে।তবে ইজিপ্ট থেকে বাংলাদেশে পেঁয়াজ পাঠাতে প্রায় মাসখানেক লাগে। চিন থেকে আনতে লাগে ২৫ দিন। সেখানে ভারত থেকে আনতে গেলে কয়েক দিন লাগে মাত্র।মালয়েশিয়া থেকে পেঁয়াজ আনতেও অবশ্য কম সময় লাগে। প্রসঙ্গত মালয়েশিয়া ভারতের পরেই দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পরিমাণে পেঁয়াজ ক্রয়কারী দেশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here