news national

মহানগর ওয়েবডেস্ক: সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণের জন্য যথেষ্ট সংখ্যক বিধায়কদের সমর্থন রয়েছে অশোক গেহলটের কাছে। রাজস্থানে প্রায় বিগত এক সপ্তাহ ধরে চলতে থাকা রাজনৈতিক টানাপড়েনের মাঝে এদিন এমনটাই দাবি করেছে শিবির। যারা শচীন পাইলটের সঙ্গে বিদ্রোহ ঘোষণা করেছিলেন তারা চাইলে দলে ফিরে আসতে পারেন, এই বলে বাকি বিধায়কদের জন্যও দরজা খোলা রাখা হয়েছে।

এদিন কংগ্রেসের তরফে দাবি করা হয়, ‘আমাদের কাছে সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণের জন্য সংখ্যা রয়েছে। গত মাসে রাজ্যসভা নির্বাচনের সময় আমরা সাবধান না হলে এতদিনে সেটা থাকত না।’ বিজেপি বিদ্রোহী কংগ্রেস বিধায়কদের সঙ্গে পরিকল্পনা করে এখনও রাজস্থান সরকার ফেলার চেষ্টা করে চলেছে বলে এদিন দাবি করা হয়। যারা ফিরে আসতে চান তাদের স্বাগত জানানো হলেও যারা বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন তাদের জনগণ ক্ষমা করবে না, বলেন মন্ত্রী প্রতাপ সিং।

অন্যদিকে পাইলটের জায়গায় আসা নতুন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি গোভিন্দ সিং ডোটাসরা বলেন, রাজস্থান পুলিশ যখন কংগ্রেসের বিধায়কদের এদিন হরিয়ানায় খুঁজতে গিয়েছিল; তখন বিজেপি শাসিত রাজ্যের পুলিশের মদতেই তাদের পালানোর ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়। হরিয়ানার মানেসরের রিসর্টে বিদ্রোহী কংগ্রেসি বিধায়কদের রাজস্থানের স্পেশাল অপারেশন খুঁজতে গেলেও পায়নি। বিজেপি শাসিত হরিয়ানার পুলিশ ইচ্ছাকৃত তাদের অপেক্ষা করিয়ে রেখেছিল যাতে পিছনের দরজা দিয়ে কংগ্রেস বিধায়কদের পালানোর ব্যবস্থা করে দেওয়া যায়। এমনটাই দাবি করেন নব্য নিযুক্ত প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি।

রাজস্থানের প্রাক্তন উপমুখ্যমন্ত্রী শচীন পাইলটের দিকে কমপক্ষে ১৮ বিধায়কের সমর্থন রয়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে। কংগ্রেসের দাবি, এদের সকলকেই হরিয়ানারার মানেসরের রিসর্টে লুকিয়ে রাখার ব্যবস্থা করেছে বিজেপি। যদিও বিজেপি এই সমস্ত দাবি নাকচ করে দিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here