মহানগর ডেস্ক:  দেশে এই ভয়াবহ করোনা পরিস্থিতি থেকে উদ্ধারের অন্যতম উপায় হল গণহারে টিকাকরণ। একাধিক রাজ্য করোনার টিকা নিয়ে অভিযোগ করেছে। কোনও কোনও রাজ্য টিকার ঘাটতির অভিযোগ করছেন তো কেউ কেউ কেন্দ্রের করোনার টিকার নীতি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে। ড্যামেজ কন্ট্রোলে নেমে পড়েছে কেন্দ্র। কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল ও রাজ্যগুলোতে ৯ লক্ষের ওপর ভ্যাকসিন পাঠানো হবে খুব শীঘ্রই।

কেন্দ্র প্রায় ১৮ কোটি ভ্যাকিসন রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলগুলোতে বিনামূল্যে দিয়েছে। এখনও পর্যন্ত এক কোটির ওপর ভ্যাকসিন রয়েছে কেন্দ্রের কাছে। জানা গিয়েছে, সেগুলো বিনামূল্যে কেন্দ্র ও রাজ্যগুলোতে পাঠানো হবে। অনেক একাধিক রাজ্যে করোনার ভ্যাকসিনের ডোজ নষ্ট হচ্ছে বলে কেন্দ্রের তরফে অভিযোগ করা হয়েছে। এরপরেই কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, আগামী তিন দিন মধ্যে রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলগুলোতে ৯ লক্ষ ভ্যাকসিন পৌঁছবে।

সোমবারই ভ্যাকসিনের অভাবের কথা জানিয়েছেন দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী। দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন বলেছেন, কোভ্যাক্সিন আর এক দিনের পড়ে রয়েছে। অন্য দিকে, কোভিশিল্ড পড়ে রয়েছে তিন দিনের বলে দিল্লির স্বাস্থ্য দফতরের তরফে জানানো হয়েছে।

অন্য দিকে, সুপ্রিম কোর্টও কেন্দ্রের করোনা টিকাকরণের নীতি নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছে। সোমবারের শুনানিতে করোনার টিকা নীতি নিয়ে একাধিক প্রশ্ন করে সুপ্রিম কোর্ট। সুপ্রিম কোর্ট কেন্দ্র ও রাজ্যের টিকার দামে এত হেরফের কেন সেই নিয়ে জানতে চায়। পাশাপাশি প্রশ্ন তোলে, কোন রাজ্য আগে টিকা পাবে ও কোন রাজ্য পরে টিকা পাবে, এই বিষয়ে কীভাবে কেন্দ্র সিদ্ধন্ত নিয়েছে। কেন্দ্রের টিকার নীতির সম্পূর্ণ পরিকল্পনা জানতে চায় সুপ্রিম কোর্ট। তবে সুপ্রিম কোর্টের এই অবস্থানে মোটেই খুশি নয় কেন্দ্র।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here