স্বাস্থ্য দপ্তরের ‘গোঁজামিলে সোজা’ ক্রমতালিকা দেখে তোলপাড় সোশ্যাল মিডিয়া

0
69

মহানগর ওয়েবডেস্ক: রাজ্যে সরকারিস্তরে নিয়োগ আর বিতর্ক এখন প্রায় সমার্থক। ফের একবার সেই নিয়োগ নিয়েই বেশ জলঘোলা শুরু হয়েছে। সম্প্রতি রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের ফেসিলিটি ম্যানেজার পদে নিয়োগের জন্য আবেদনকারীদের একটি দীর্ঘ তালিকা প্রকাশিত হয়েছে। ওয়েস্ট বেঙ্গল হেলথ রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এই তালিকা দেখে চোখ কপালে উঠেছে চাকরিপ্রার্থীদের। তাদের অভিযোগ, নিয়োগে কাটমানি নেওয়ার রাস্তা খোলা রাখতেই ভুয়ো পরিচয় ও যোগ্যতার প্রার্থীদের নাম ঢোকানো হয়েছে তালিকায়। চাকরিপ্রার্থীদের একাংশের তরফে এই ‘পুকুরচুরি’র অভিযোগ সামনে আসায় রীতিমতো হৈচৈ উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

প্রকাশিত তালিকায় তেমন ভজঘট ব্যাপার চোখেও পড়েছে। এবং তা মূলত ঘটেছে তপশিলি জাতি এবং তপশিলি উপজাতির প্রার্থীদের ক্ষেত্রে। বোঝাই যাচ্ছে, অনেকে ইচ্ছাকৃতভাবে যা খুশি তাই নাম ব্যবহার করে আবেদন করা হয়েছে। পাশাপাশি, অনেকে উচ্চমাধ্যমিক এবং স্নাতক স্তরের পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বরের শতাংশ যা দেওয়া হয়েছে, তা অস্বাভাবিক লেগেছে। তালিকার প্রথম নামটি বিস্মিত হওয়ার মতোই। সেখানে আবেদনকারীর নাম HELO MARDI এবং বাবার নাম HAY MARDI রয়েছে। দ্বিতীয় নামটি PAYEL GHOSH MONDAL, পিতার নাম PAYEL GHOSH MONDAL রয়েছে। পঞ্চম নামটি পদবিহীন SUDAMA, বাবা KRISHNA, পদবি নেই। আবার অষ্টম নামটি DIPAK ROY-এর, DIPAK SEN তার বাবা। এমনই হযবরল টাইপ তালিকা দেখে তাই চক্ষু চড়কগাছ সকলের। আবার ক্রমতালিকায় ৯৯৩১ এবং ৯৯৩২-এ রয়েছে SUNNY LEONE-র নাম। পিতা, DILIP SUNNY.

এমন ‘গোঁজামিলে সোজা’ ক্রমতালিকা দেখে চাকরিপ্রার্থীদের ক্ষোভ স্বাভাবিক। ফেসবুকে একটি পোস্ট এদিন ভাইরাল হয়েছে। পোস্টের বক্তব্য: ‘দিদিকে_বলো। বলা তো দূরের কথা, চেঁচালেও মনে হয়ে কেউ শুনতে পাবে না।… মাননীয়া স্বাস্থ্যমন্ত্রী, জেনারেলদের থেকে ১৬০ টাকা করে নিয়ে ফর্ম ফিলআপ করিয়ে ইয়ার্কি হচ্ছে? কোনও পরীক্ষা নেওয়া হল না, ইন্টারভিউ হল না। ডিরেক্ট ডকুমেন্ট ভেরিফিকেশনের জন্য সানি লিওনকে ডেকে পাঠিয়েছেন? দুর্নীতির একটা সীমা হয়। লজ্জারও? বলেই তো দিতে পারেন নিজের লোক ঢোকাবেন। এরকম জানলে আমরা আর টাকা দিয়ে ফর্ম ফিলআপ করে পরীক্ষা দিতাম না। পড়াশোনা করে সময় নষ্ট না করে প্রাইভেট চাকরিগুলোয় মন দিতাম। মানছি পরিশ্রম বেশি। তবে দুর্নীতি নেই। আপনাদের কি মনে হয় আমাদের টাকা আর সময় অফুরন্ত? ধিক্কার_wbhrb.

জানা গিয়েছে, স্বাস্থ্য দপ্তরে এই ফেসিলিটি ম্যানেজার পদে নেওয়া হবে ৮১৯ জন। অথচ আবেদনকারীর সংখ্যা ২ লক্ষ ৬১ হাজার ৫৮৫ জন। রিজার্ভড ক্যাটেগরির (তপশিলি জাতি, তপশিলি উপজাতি এবং ফিজিক্যালি হ্যান্ডিক্যাপড) প্রার্থীদের ফর্ম ছাড়তে কোনও টাকাপয়সা লাগেনি। বাকি জেনারেলদের ১৬০ টাকা করে ফর্ম ভরতে লেগেছে। নাম্বার কাউন্ট সিস্টেম ছিল, উচ্চমাধ্যমিকের মোট প্রাপ্ত নম্বরের ৬০ শতাংশ এবং স্নাতক স্তরের নম্বরের ৪০ শতাংশ। কম্পিউটারের সাহায্য শর্টলিস্ট তৈরি করা হয়েছে, তাই ভুয়ো প্রার্থীদের সনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। এ বিষয়ে ওয়েস্ট বেঙ্গল হেলথ রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি। তবে রাজ্যের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য বলেছেন, এটি তো সরকারের কোনও বিষয় নয়। তাই যা বলার বলবে ওয়েস্ট বেঙ্গল হেলথ রিক্রুটমেন্ট বোর্ডই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here