ডেস্ক: চরম বিতর্কের পর অবশেষে স্বস্তি মিলল তৃণমূল সরকারের। হাইকোর্টের রায়ে সরকারের তরফে পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী পুজো ক্লাবগুলিকে টাকা দিয়ে আর রইল না কোনও বাধা। আদালতের তরফে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে রাজ্যের এই সিদ্ধান্তে আদালত কোনও রকম নাক গলাবে না। রাষ্ট্র চাইলে টাকা দিতে পারে। পুজো ক্লাবগুলিকে সরকারের তরফে ১০ হাজার টাকা করে দেওয়ার বিরোধিতায় জনস্বার্থ মামলার রায়ে ঠিক এমনটাই জানাল ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি দেবাশিষ করগুপ্তের ডিভিশন বেঞ্চ।

হাইকোর্টের তরফে এদিন স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়েছে,’ হতে পারে টাকা জনগণের। কিন্তু রাষ্ট্র কোনও সিদ্ধান্ত নিলে তা জনগণকে মানতে হবে। রাষ্ট্রের প্রতিটি সিদ্ধান্তে যদি এইভাবে প্রশ্ন তোলা হয় সেক্ষেত্রে জনগণের সঙ্গে সরকারের বিশ্বাসে ছেদ পড়বে। আর্থিক বিষয়ে সরকারের সিদ্ধান্তই চুড়ান্ত। আইনসভা যখন কোনও সিদ্ধান্ত নেবে সে বিষয়ে আদালত কোনও রকম হস্তক্ষেপ করবে না। জনগণেরও আইনসভার সিদ্ধান্তে নাক গলানোর অধিকার নেই। তবে টাকা ঠিক মতো খরচ হচ্ছে কিনা সেটা পরে বিবেচনা করে দেখা হবে। আপাতত এবিষয়ে আদালত কোনও হস্তক্ষেপ করবে না।’

উল্লেখ্য, সম্প্রতি রাজ্যের ২৮ হাজার পুজো কমিটিকে ১০ হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় রাজ্য সরকার। আর বিরুদ্ধে গিয়ে আদালতে দায়ের হয় জনস্বার্থ মামলা। বলা হয় ইমাম ভাতাকে অবৈধ বলে রায় দিয়েছে আদালত সেক্ষেত্রে পুজোয় কেন ১০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে। রাজ্যের কাছে বেশকিছু প্রশ্নও তোলে আদালত। তবে সব কিছুর পর এদিন এই মামলার রায় ঘোষণা করল কলকাতা হাইকোর্ট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here