ডেস্ক: এক হিন্দু তরুণীকে জোর করে ধর্মান্তরিত করার অভিযোগ উঠল ভিনধর্মী এক যুবকের বিরুদ্ধে। পরে হোমযজ্ঞ করে ফের সেই তরুণীকে হিন্দুধর্মে ফেরানো হল।

ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের আলিগড় এলাকায়। ২০০৮ সালে এই ধর্মান্তরকরণের ঘটনাটি ঘটে। নিজেকে হিন্দু পরিচয় দিয়ে কবির চৌহান নামের এক যুবক ভেক ধরে সেই তরুণীর সঙ্গে প্রণয়ের সম্পর্ক গড়ে তোলে এবং বিয়ে করে। পরে জানা যায় যুবকটির আসল নাম ইউসুফ। বিয়ের দেড় বছর পর দম্পতির এক সন্তানও হয়। এরপর থেকেই ধর্মান্তর করানোর জন্য তরুণীর ওপর চাপ দিতে থাকে ইউসুফ। এমনকি ইউসুফ তাঁর দাদার সঙ্গে জোর করে নিকাহ করতেও বাধ্য করা হয় তরুণীকে। এই প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় চরম শারীরিক নিগ্রহের শিকার হতে হয় তাঁকে।

দাদার সঙ্গে বিয়ে দেওয়ার পর ওই তরুণীকে ফের বিয়ে করে ইউসুফ। তরুণী অভিযোগ করে, এরপর থেকেই শ্বশুর-সহ পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গেও শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হতে বাধ্য করা হয়। সম্পর্কে লিপ্ত হতে না চাইলে সেই ধর্ষণের ভিডিও তুলে চারিদিকে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয় তাঁকে। অবশেষে স্থানীয় থানার দ্বারস্থ হয় ওই তরুণী। কিন্তু এখনও অবধি অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়নি বলে জানা গেছে। আলিগড় শহরের পুলিশ সুপার অতুলকুমার শ্রীবাস্তব ঘটনার তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছেন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here