married pic

Highlights

  • ২৪ বছর বয়সী এক যুবতীকে বিয়ের মণ্ডপ থেকে জোর করে তুলে নিয়ে গেল মুসলিম
  • অপহৃতা ওই তরুণীর নাম ভারতী বাই
  • এমন ঘটনায় রীতিমতো আতঙ্কিত সিন্ধু প্রদেশের সংখ্যালঘুরা
মহানগর ওয়েবডেস্ক: সংখ্যালঘু যুবতীদের অপহরণ করে বিয়ের ঘটনা নতুন কিছু নয় পাকিস্তানে। বার বার হুঁশিয়ারি সত্ত্বেও এই চিত্রে কোনও বদল ঘটেনি ইমরান খানের দেশে। সেই ঘটনাই এবার পুনরাবৃত্তি ঘটল পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশে। ২৪ বছর বয়সী এক যুবতীকে বিয়ের মণ্ডপ থেকে জোর করে তুলে নিয়ে গিয়ে, তাঁর ধর্ম পরিবর্তন করে বিয়ে দেওয়া হল এক মুসলিম যুবকের সঙ্গে। দিনের আলোয় এমন ঘটনায় রীতিমতো আতঙ্কিত সিন্ধু প্রদেশের সংখ্যালঘুরা।
সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, অপহৃতা ওই তরুণীর নাম ভারতী বাই। ঘটনার দিন তাঁর বিয়ে হচ্ছিল হালা শহরের এক হিন্দু যুবকের সঙ্গে। কিন্তু বিয়ে যখন মাঝপথে তখনই ভারতীকে জোর করে তুলে নিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা। পুলিশ সেখানে উপস্থিত থাকলেও দুষ্কৃতীদের সাহায্য করে। এরপর তাঁর ধর্ম পরিবর্তন করে বিয়ে দেওয়া হয় শাহরুখ গুল নামে এক মুসলিম যুবকের সঙ্গে। এই অপহরণ কাণ্ডের হোতা ছিল ওই যুবকই।
ইতিমধ্যেই ভারতীর ধর্ম পরিবর্তনের সার্টিফিকেট পেশ করেছে এক মসজিদ। যেখানে তাঁর নতুন নাম রাখা হয়েছে বুশরা। তাঁর বর্তমান ঠিকানা বদলে লেখা হয়েছে করাচির গুলশন ইকবাল এলাকা। উল্লেখ্য, পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান যতই দাবি করুন পাকিস্তানে সংখ্যালঘুরা সুরক্ষিত। তবে পাকিস্তানের সাম্প্রতিক চিত্র কিন্তু তা বলে না। পাকিস্তানের সংখ্যালঘু তরুণীদের অপহরণ করে ধর্ষণ ও হত্যার অত্যন্ত সাধারণ ঘটনা। যার ফলস্বরূপ পাকিস্তানের মাটিতে উল্লেখযোগ্যভাবে কমেছে সংখ্যালঘুদের সংখ্যা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here