যুব মোর্চার বিক্ষোভে জলকামান-টিয়ার গ্যাস! খবর পেয়েই রিপোর্ট তলব স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

0
734

মহানগর ওয়েবডেস্ক: কলকাতায় আরও একটা বিজেপি-র মিছিল। আরও একবার ধুন্ধুমার পরিস্থিতি। এবং তারপরই রাজ্যের কাছে রিপোর্ট তলব করলেন ক্ষুব্ধ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

বুধবার বিজেপি-র যুব মোর্চার কর্মসূচি ছিল সিইএসসি দফতর ঘেরাও। বিদ্যুতের মাত্রা ছাড়া বিলের প্রতিবাদে পথে নেমে বিক্ষোভ দেখাবে বলে ঠিক করে যুব মোর্চা। তৈরি ছিল পুলিশও। মিছিল সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউর পথ ধরে ভিক্টোরিয়া হাউসের চৌহদ্দির কাছে পৌঁছতেই পুলিশ বাধা দেয়। পাল্টা বিক্ষোভের ঝাঁঝ বাড়ে গেরুয়া শিবিরের। পুলিশি ব্যারিকেড ভাঙার চেষ্টা শুরু হতেই নেমে আসে জলকামান। সঙ্গে শুরু হয় লাঠিচার্জ। যুব মোর্চার ভিড়কে ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ার গ্যাসে শেল ছোড়ে পুলিশ। বিজেপি-র তরফে অভিযোগ, পুলিশের অত্যাচারেই গুরুতর জখম হয়েছেন তাদের ৫০ জনেরও বেশি কর্মী।

দিল্লিতে বসে রইলেও কলকাতার পরিস্থিতির ওপর কড়া নজর রেখেছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। সূত্রের খবর, কলকাতায় পুলিশের জলকামান ও টিয়ার গ্যাস ছোড়ার ভিডিয়ো দেখে রীতিমতো ক্ষোভপ্রকাশ করেন তিনি। ইতিমধ্যেই পূর্ণাঙ্গ ঘটনার রিপোর্ট তলব করেছেন তিনি। অবিলম্বে রাজ্য সরকারের কাছে রিপোর্ট জমা দিতে বলেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। এই নিয়ে রাজ্য সরকারের তরফে বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় পাল্টা একটি বিবৃতি প্রকাশ করে। বিজেপি-র অভিযোগ, পুলিশি জোরে মুখ বন্ধ করে রাখা হচ্ছে বিরোধীদের।

এদিন রাজ্য বিজেপির সদর দফতর থেকে মিছিলে অংশ নিয়েছিলেন সায়ন্তন বসু ও রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো নেতারা। পুলিশ তাদের আটক করে পরিস্থিতি শান্ত রাখার চেষ্টা করেছিল। কিন্তু তাতে আরও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here