kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: জম্মু-কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বিলোপের পর মাস দেড়েক কেটেছে। কিন্তু উপত্যকার রাজনৈতিক মুখগুলোর কোনও হদিশ নেই। দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহ ও মেহমুবা মুফতিদের দেখাই যায়নি। ন্যাশনাল কংগ্রেস প্রধান ফারুক আবদুল্লাহকে একবার দেখা গেলেও তিনিও এখন গৃহবন্দি। এই অবস্থায় স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠছে, জনগণ দ্বারা নির্বাচিত প্রতিনিধিদের কতদিন ‘আটক’ করে রাখবেন কেন্দ্রীয় সরকার? উত্তর দিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং। তাঁর দাবি, ১৮ মাসের বেশি কোনও ভাবেই নয়।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং দাবি করেছেন, কাশ্মীরের রাজনৈতিক নেতাদের ১৮ মাসের বেশি কখনই বন্দি করে রাখবে না কেন্দ্র। তিনি আরও জানিয়েছেন, তাদের মোটেই গ্রেফতার করা হয়নি। বরং ‘গৃহ অতিথি’ হিসেবেই রাখা হয়েছে ওমর-মেহবুবাদের। ‘সমস্ত রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের ভিআইপি বাংলোয় রাখা হয়েছে। আমরা ওদের ভালো ভালো হলিউড সিনেমার সিডি দিয়েছি। শরীরচর্চার জন্য জিমের ব্যবস্থাও রয়েছে। ফলে ওরা গৃহবন্দি নন। বরং ঘরের অতিথির মতো।’ দাবি কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর। জোর দিয়ে বারবার তিনি বলেছেন, তাদের ১৮ মাসের বেশি আটকে রাখার কোনও প্রশ্নই নেই। জিতেন্দ্র সিং আরও বলেন, ‘পাক অধিকৃত কাশ্মীর আমাদের। এবং জম্মু কাশ্মীরের সীমান্ত ভেঙে এক করে দিতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’

অগস্ট মাসের ৫ তারিখ অমিত শাহ সংসদে জম্মু কাশ্মীর ও লাদাখকে পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করার পর থেকেই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীদের ও অন্যান্য রাজনৈতিক নেতাদের গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে প্রাথমিকভাবে কড়া প্রতিক্রিয়া দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু এরপর আর তাঁকে সেভাবে সরব হতে শোনা যায়নি। মেহবুবারাও বিরোধিতার সুর চড়িয়েছিলেন প্রথমে। তারাও কার্যত এখন চুপ। বাইরের জগতের সঙ্গে তাদের সবরকম যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে রেখে দিয়েছে কেন্দ্র।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here