নিজস্ব প্রতিবেদক, কুলটি: আসানসোলের কুলটি থানার রাধানগরে গৃহবধূ খুনের ঘটনায় প্রেমিকসহ আরও দু জনকে আটক করল পুলিশ। নিহতের নাম লীলা ভুঁইঞা। জানা গিয়েছে, লীলা ভুইঞার স্বামী মারা গিয়েছে দশ বছর আগে। স্বামী মারা যাবার পর লীলা দেবী রাধানগর হাটিয়ায় একটি বাড়িতে থাকতেন । দিন মজুরি করে একাই তিন সন্তানের ভরনপোষণ করতেন। কাজের সূত্রেই তার সঙ্গে পরিচয় হয় হপন মাঝির। এই সময় থেকেই ECL কর্মী হপন মাঝির সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন তিনি ।

বন্ধুত্ব গড়ায় ভালবাসায়। লীলা দেবীর তিনটি সন্তানও রয়েছে। তাদেরকেও মেনে নিয়েছিল হপন। তিন সন্তানের ভরণ পোষণের দায়ীত্বও নেয় সে । প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, সোমবার রাধানগর পেট্রল পাম্প সংলগ্ন একটি ভাড়া বাড়িতে লীলা কে নিয়ে যায় হপন । এরপর লীলা আর বাড়ি ফেরেনি । তার সন্তানরা খোঁজ করে ওই বাড়িতে গিয়ে তার মা কে পড়ে থাকতে দেখে । খবর পেয়ে ছুটে যায় নিয়ামতপুর ফাঁড়ির পুলিশ । আটক করা হয় হপন মাঝিকে । জিজ্ঞাসাবাদ এর জন্য আরো দুজনকে আটক করা হয়েছে ।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here