Home Featured তবে আজই জাতীয় রাজনীতিতে প্রবেশ করছেন মমতা!

তবে আজই জাতীয় রাজনীতিতে প্রবেশ করছেন মমতা!

0
তবে আজই জাতীয় রাজনীতিতে প্রবেশ করছেন মমতা!
Parul

মহানগর ডেস্ক: আজ ২১ জুলাই। তৃণমূলের শহীদ দিবস গত বছর থেকেই দেশে তান্ডব চালাচ্ছে করোনা মহামারী। যার কারণে গত বছরও ভার্চুয়াল ভাবেই পালন করা হয়েছিল ২১ জুলাই। চলতি বছরও পালন করা হবে ভার্চুয়াল ভাবেই ২১ জুলাই।
কালীঘাটে নিজের বাড়ি থেকে ভাষণ দেবেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

কিন্তু চলতি বছরে ২১ জুলাই একটু অন্যরকম। চলতি বছর সর্বভারতীয় স্তরে তৃণমূল সুপ্রিমো বার্তা পৌঁছে যাবে। দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, গুজরাট, অসম, তামিলনাড়ু, মনিপুর সহ একাধিক রাজ্যে শোনা যাবে তৃণমূল সুপ্রিমোর বার্তা। বাংলার পাশাপাশি হিন্দিতেও ভাষণ দেবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ভাষণে গুরুত্বপূর্ণ অংশ অন্যান্য ভাষায় সাবটাইটেলের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

বুধবার বেলা ১২ টায় ভিক্টোরিয়া হাউজের সামনে একটি অনুষ্ঠানে শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করা হবে। সেখানে থাকবেন সুব্রত বক্সী, পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মত বর্ষিয়ান নেতারা। দুপুর ১টায় কালীঘাটের বাড়ি থেকে ভার্চুয়াল বক্তৃতা দেবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কলকাতার প্রতিটি ওয়ার্ডে এবং রাজ্যের প্রতিটি বুথে জায়েন্ট স্ক্রিনের শোনা যাবে তৃণমূল নেত্রীর বার্তা।

এই ২১ জুলাই কী? কী হয়েছিল এই দিনে? ১৯৯৩ সালে ২১ জুলাই কলকাতার রাজপথে পুলিশের গুলিতে ১৩ যুব কংগ্রেস কর্মীর মৃত্যু হয়েছিল। সেই সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছিলেন রাজ্য যুব কংগ্রেসের সভানেত্রী। সেই থেকেই প্রতিবছর ২১ জুলাই দিনটিকে শহীদ দিবস হিসেবে পালন করা হয়।

শহীদ দিবস উপলক্ষে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় টুইট করে লিখেছেন, ১৯৯৩ সালে এই দিনে যে ১৩ জন শহীদ হয়েছিলেন, তাদের প্রতি আন্তরিক শ্রদ্ধা। আজ দুপুর দুটোয় শহীদদের শ্রদ্ধা জানানোর জন্য ভার্চুয়াল সভায় যোগ দেওয়ার জন্য সকলকে আমন্ত্রণ জানাই। যারা অমানবিক অত্যাচার চালাচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে তৃণমূল জোর গলায় এবার আওয়াজ তুলবে।

এছাড়াও এদিন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ট্যুইট করে জানিয়েছেন, ১৯৯৩ সালের সেই যন্ত্রণাদায়ক স্মৃতি এখনো টাটকা। তৎকালীন সরকারের অমানবিক নিষ্ঠুরতার শিকার হয়েছে ১৩ জন কর্মী। কোনদিনও ভোলা যাবেনা।

অন্যদিকে, তৃণমূলের ২১ জুলাই পালন নিয়ে কটাক্ষ করতে ছাড়েনি বিজেপি। দিলীপ ঘোষ জানিয়েছেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জাতীয় স্তরের নেতা হওয়ার চেষ্টা করছেন। কিন্তু তৃণমূল আগে যেসব রাজ্য শাখা খুলে ছিল সেগুলি তো গুটিয়ে গেছে’।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here