Home Featured বাঙালি বিজ্ঞানীর বিস্ময় আবিষ্কার! যেকোনো সময় শ্বাসকষ্ট দূর করবে পকেট ভেন্টিলেটর

বাঙালি বিজ্ঞানীর বিস্ময় আবিষ্কার! যেকোনো সময় শ্বাসকষ্ট দূর করবে পকেট ভেন্টিলেটর

0
বাঙালি বিজ্ঞানীর বিস্ময় আবিষ্কার! যেকোনো সময় শ্বাসকষ্ট দূর করবে পকেট ভেন্টিলেটর
Parul

নিজস্ব প্রতিনিধি, হাওড়া: করোনা আবহে বিস্ময়কর আবিষ্কার করে তাকে লাগালেন হাওড়ার শিবপুরের নিবাসী বিজ্ঞানী রমেন্দ্রলাল মুখার্জী। তাঁর আবিষ্কৃত পকেট ভেন্টিলেটর ইতিমধ্যেই সাড়া ফেলে দিয়েছে নেট ও সংবাদমাধ্যমে। পকেট সাইজের মতো ছোট হাতের তালু আকারের ভেন্টিলেটর করোনা সহ যেকোনো শ্বাসকষ্ট জনিত সমস্যায় ভোগা রোগীকে নিঃশ্বাস-প্রশ্বাস নিতে সাহায্য করবে বলে জানিয়েছেন এই বিজ্ঞানী।এমনকি একটানা মাস্ক পড়ে থাকার সমস্যা থেকেও এই পকেট ভেন্টিলেটর মুক্তি দিতে পারে এমনটাই আশাবাদী তিনি।

তাঁর দাবি, ‘এই ভেন্টিলেটর বাতাসে ভাসমান বিভিন্ন ধরনের ভাইরাস আটকাতেও সক্ষম হবে। অক্সিজেনের ঘাটতি তো মিটবেই, পাওয়া যাবে বিশুদ্ধ বাতাসও। প্রয়োজন অনুযায়ী অক্সিজেনের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। সারাদিনের মাত্র তিন ঘন্টা একবার চার্জ দিলে কাজ করবে টানা ১০ ঘন্টা।’

তিনি আরো জানিয়েছেন, “এই বিশেষ যন্ত্রটির দুটো অংশ রয়েছে একটি পাওয়ার ইউনিট। অন্যটি ভেন্টিলেটর ইউনিট। পাওয়ার ইউনিটে আছে অন অফ সুইচ। সেখানে আছে একটি সকেট। যেখানে কানেক্টর বা জ্যাক লাগানোর ব্যবস্থা রয়েছে। আর আছে একটি নব। এই নবের মাধ্যমে বাতাস, অক্সিজেন কতটা প্রয়োজন তা নিয়ন্ত্রণ করা যায়। আর ভেন্টিলেটর ইউনিট ভেন্টিলেটরের কাজ করে। এই ইউনিট বাইরে থেকে যে বাতাস টানা হচ্ছে তার মধ্যে যাতে কোনরকম ধুলো, বাতাসের জীবাণু না থাকে তার জন্য ফিল্টার করছে। তারপরেও বাতাসে যদি কোনোরকম জীবাণু থাকলে সেখানে স্ট্রং আল্ট্রাভায়োলেট ফিল্টার থাকছে। তার মাধ্যমে মেরে দেওয়া যাবে জীবাণু। পাশাপাশি ব্ল্যাক ফাঙ্গাস মেরে দেওয়ারও ক্ষমতা রয়েছে।”

স্বভাবতই এই যন্ত্র ঠিকভাবে কাজে লাগাতে পারলে অনেকটাই সুরাহা পাবে মানব জগৎ। বিশেষত এই করোনা আবহে এই যন্ত্রের অপরিসীম সম্ভাবনা রয়েছে। এই আবিষ্কার যেমন কার্বন ডাই অক্সাইড ফিল্টার করে তৎক্ষণাৎ অক্সিজেনের ঘাটতি মেটাতে সক্ষম হবে তেমনই জীবাণু,ফাঙ্গাস ইত্যাদি ক্ষতিকর পদার্থ থেকে শরীরকে বাঁচিয়ে অভিনব মাস্ক হিসেবেও কাজ করবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here